বিদ্যালয়ে আসার পথে এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ ও শ্লীলতাহানির চেষ্টাকালে জহিরুল ইসলাম (২৪) নামে এক অটোরিকশাচালককে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার সকাল ৯টায় কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার মাশিকাড়া গ্রামের জোড়পুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটক জহিরুল ইসলাম (২৪) উপজেলার ধামতী গ্রামের রোসমত আলীর পুত্র। ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রী উপজেলার মাশিকাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মাশিকাড়া আসার পথে ওই স্কুলছাত্রীকে বিদ্যালয়ের সামনে নামিয়ে দেওয়ার কথা বলে তাকে জহিরুল ইসলাম তার সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তোলে। কিন্তু সে বিদ্যালয়ে না এসে উল্টো জোড়পুলের দিকে দ্রুত যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় ওই ছাত্রী অটোরিকশা থামাতে বললেও সে না থামিয়ে দ্রুত জোড়পুল এলাকা হয়ে ‘দেবিদ্বার-চান্দিনা’ সড়কের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে। এসময় ওই ছাত্রী চিৎকার শুরু করলে চালক জোরপূর্বক তার শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। পরে পথচারী ও পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন ছাত্রীটিকে উদ্ধার করে চালককে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।

সংবাদ পেয়ে দেবিদ্বার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) চন্দন চন্দ্র দাস ঘটনাস্থল থেকে অপহরণের চেষ্টাকারী চালক ও ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

এ ব্যপারে মাশিকাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোক্তল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বিদ্যালয়ে আসার পথে মেয়েটিকে অপহরণ এবং এক পর্যায়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করলে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে উদ্ধার ও অপহরণকারীকে আটক করা গেছে। পরে অপহরণের চেষ্টাকারী চালককে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমল কৃষ্ণ ধর জানান, সংবাদ পেয়ে আমাদের পুলিশ ভুক্তভোগীকে উদ্ধার এবং সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালককে থানায় নিয়ে আসে। ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।