ইউক্রেনের দ্বীপ স্নেক আইল্যান্ড থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার কথা জানিয়েছে রাশিয়া।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ তথ্য জানায় বিবিসি।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, স্নেক আইল্যান্ড থেকে আমাদের সেনাদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

যুদ্ধের প্রথম দিকে এ দ্বীপ ছিল আগ্রহের কেন্দ্র। তখন ইউক্রেনের সেনাদের একটি অডিও ছড়িয়ে পড়েছিল। যেখানে রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজকে উদ্দেশ্য করে তাদের বলতে শোনা যাচ্ছিল, ‘দোজখে যাও।’

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, একটি শুভেচ্ছার অঙ্গভঙ্গি হিসেবে, রাশিয়ান সৈন্যরা স্নেক আইল্যান্ডে কাজগুলো সম্পন্ন করেছে এবং সেখানে থাকা সেনাদের প্রত্যাহার করা হয়েছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, আমাদের এ পদক্ষেপ দেখাচ্ছে যে, রাশিয়ান ফেডারেশন ইউক্রেনের বাইরে কৃষি পণ্য পাঠাতে একটি মানবিক করিডোর সংগঠিত করার জন্য জাতিসংঘের প্রচেষ্টাকে বাধা দিচ্ছে না। 

মন্ত্রণালয় আরও বলছে, যে কোনো ধরনের খাদ্য সংকটের দোষ রাশিয়ার ঘাড়ে চাপানো এবং ‘কৃষ্ণসাগরের উত্তরপশ্চিমাঞ্চল রাশিয়ার দখলে থাকায়’ শস্য রপ্তানিতে ব্যর্থ হচ্ছে ইউক্রেন— কিয়েভ এমন কথা যেন বলতে না পারে সেজন্য এ সিদ্ধান্ত।

এদিকে ইউক্রেনের কর্মকর্তারাও স্নেক আইল্যান্ড থেকে রুশ সেনা প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির কার্যালয়ের প্রধান অ্যান্ড্রি ইয়ারমাক টুইটারে লিখেছেন, ‘কাবুম! স্নেক আইল্যান্ডে আর কোনো রুশ সেনা নেই। আমাদের সশস্ত্র বাহিনী দুর্দান্ত কাজ করেছে।’