টিসিবির পণ্য কিনতে গিয়ে প্রচণ্ড ভিড়ের চাপে আড়াই ঘণ্টা দাঁড়িয়েছিলেন প্রবাসী এক ব্যক্তির স্ত্রী রুমা বেগম (৩০)। কিন্তু এতক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকেও তিনি পণ্য কিনতে পারেননি। এর মধ্যে প্রচণ্ড ভিড়ের চাপ সামলাতে না পেরে স্ট্রোক করে ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত তার জ্ঞান ফিরে না আসায় তাকে যশোর সদরে পাঠাতে বলা হয়েছে। অন্যদিকে ডিলারদের চরম অব্যবস্থাপনার কারণে ভিড় সামলাতে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। 

মঙ্গলবার ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ খাদ্য গুদামে টিসিবির পণ্য বিক্রয়কালে এসব ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শিবলী জানায়, বিকেলে রুমাকে অজ্ঞান অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পরও রাত ৮টা পর্ষন্ত তার জ্ঞান ফিরে না আসায় যশোরে পাঠানো প্রয়োজন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কালীগঞ্জ খাদ্য গুদামে তিনজন টিসিবির ডিলার পণ্য বিক্রি করছিলেন। সেখানে প্রচণ্ড ভিড়ের কারণে কোনো শৃঙ্খলা ছিল না। শহরের আড়পাড়া এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রী রুমা বেগমও পণ্য কিনতে আসে। তিনি দুপুর আড়াইটা থেকে ভিড়ের মধ্যে দাঁড়িয়ে ছিলেন। কিন্তু বিকেল ৫টা পর্যন্ত পণ্য কিনতে ব্যর্থ হন। এক পর্যায়ে ওই নারী স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। এ সময় উপস্থিত লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। এ ছাড়াও ভিড় সামলাতে পুলিশ নারীদের ওপর লাঠিচার্জ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কালীগঞ্জ খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা নাইমুল হাসান জানান, রোববার সকাল থেকে সেতু ট্রেডার্স, সাদিয়া এন্টারপ্রাইজ ও সুমি ট্রেডাস নামে তিনটি টিসিবির ডিলার পণ্য বিক্রি শুরু করে। দুপুরের পর ভিড় বাড়তে থাকলে কিছুটা বিশৃঙ্খলা হয়। প্রচণ্ড ভিড়ে এক নারী জ্ঞানও হারিয়েছেন। 

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহিম মোল্ল্যা জানান, কোনো লাঠিচার্জ হয়নি। ভিড় সামলাতে শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ দ্বায়িত্ব পালন করেছে মাত্র।