স্বচ্ছ নির্বাচন হলে পশ্চিমবঙ্গে কালই ক্ষমতায় আসবে বিজেপি এমন মন্তব্য করে রাজ্যের নির্বাচনী স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন জনপ্রিয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। 

বুধবার কলকাতার হেস্টিংসে বিজেপির রাজ্য সদর দপ্তরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মিঠুন বলেন, কিছুদিন আগেই ঘুম থেকে উঠে দেখলাম মহারাষ্ট্রে সরকার গড়েছে শিব সেনা আর বিজেপি। কে বলতে পারে এখানেও তেমনটা হবে না! স্বচ্ছ নির্বাচন হলে কালই বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়বে।

মিঠুনের দাবি মমতার দল থেকে একাধিক বিধায়ক ও নেতাকর্মী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য তৈরি হয়েছেন। মিঠুন বলেন, ৩৮ জন তৃণমূল বিধায়ক আমাদের সঙ্গে ভালো যোগাযোগ রাখছেন। ২১ জনতো সরাসরি আমার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন।

পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে মিঠুন বলেন, যদি দুর্নীতির কোনো প্রমাণ না থাকে, তবে ঘুমিয়ে থাকুন। আর প্রমাণ থাকলে কেউ বাঁচাতে পারবে না। তা প্রধানমন্ত্রী হোন কিংবা রাষ্ট্রপতি। কারণ, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। 

এসএসসি চাকরিপ্রার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়ে বিজেপির এ নেতা বলেন, আন্দোলনকারীরা সত্যিই কষ্ট করছেন। আমাদের উচিত তাদের পাশে থাকা।

 এদিকে তৃণমূল বিধায়কদের বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ প্রসঙ্গে মিঠুনের দাবি উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। 

মিঠুনের মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে তৃণমূল মুখপত্র কুনাল ঘোষ সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, দিদি-ভাইয়ের সম্পর্কে চূড়ান্ত কলঙ্কের নজির মিঠুন চক্রবর্তী। যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাকে এত সম্মান দিলেন, তাকেই মাঝপথে শুধু ছেড়েই গেলেন না, পেছন থেকে ছুরি মারলেন। নির্বাচনের সময় কুৎসা, অপপ্রচার করলেন। এরকম ভাই যেন কোনো দিদির না হয়। ওনার মুখে এসব দিদি-ভাই শব্দগুলো শোভা পায় না।