পঞ্চগড়ের নদী থেকে পাথর তুলতে গিয়ে পানিতে ডুবে নূরুল ইসলাম (৬০) নামে এক পাথর শ্রমিক মারা গেছেন। সোমবার দুপুরে উপজেলা সদরের কাজীপাড়া এলাকার চাওয়াই নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

মারা যাওয়া নূরুল ইসলামের বাড়ি কাজীপাড়ায়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নদী থেকে পাথর উত্তোনের কাজ করতেন।

নূরুলের পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে নূরুল ইসলাম অন্য শ্রমিকদের সাথে নদীতে পাথর তুলতে যান। দুপুরে তিনি পাথর তোলার সরঞ্জাম নিয়ে নদীর এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে যাচ্ছিলেন। নদীর মাঝখানে গিয়ে আকস্মিক তিনি নদীর গভীর পানিতে তলিয়ে যান। বিষয়টি টের পেয়ে অন্য শ্রমিকরা তাকে উদ্ধারে পানির নিচে খুঁজতে থাকেন। নূরুল ইসলাম পানিতে তলিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে পরিবারের লোকজনসহ প্রতিবেশীরা নদীতে নেমে তাকে খুঁজতে শুরু করেন। এক পর্যায়ে কয়েকজন তাকে পানির নিচ থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসক নূরুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আল ইমরান খান জানান, ষাটোর্ধ পাথর শ্রমিক নূরুল ইসলাম সাঁতার জানেন। পাথর আনা দেওয়া ভাড়সহ সরঞ্জাম কাঁধে নিয়ে তিনি নদী পার হচ্ছিলেন। পরিবারের সদস্যসহ স্থানীয়দের সাথে কথা বলে ধারণা করা হচ্ছে, নদী পার হওয়ার সময় তিনি কোন কারণে অসুস্থ হতে পারেন। অথবা ঘাড়ে করে পাথর আনা নেওয়ার ভাড়ের রশি শরীরে জড়িয়ে পানিতে তলিয়ে যেতে পারেন।

সদর থানা ওসি আব্দুল লতিফ মিঞা বলেন, ওই শ্রমিকের মরদেহ প্রাথমিক সুরতহাল করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের আবেদনে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।