চিকিৎসকের আপত্তি স্বত্ত্বেও বায়না ধরে জেলে বসেই আলুর চপ আর বেগুনি খেয়েছেন পার্থ। সোমবার প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সেই বায়না মঞ্জুর করেন জেল কর্তৃপক্ষ। 

জেল সূত্রে জানা যায়, পার্থ বায়না করলে জেলের ক্যান্টিন থেকে দুটি আলুর চপ, দুটি বেগুনি এবং অল্প মুড়ি দেওয়া হয়। এছাড়া সকালে তাকে চা এবং মাখন টোস্ট, দুপুরে ভাত-ডাল-তরকারি দেওয়া হয়। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার। 

জেল সূত্র থেকে আরও জানা যায়, বিকেলে জেলের উচ্চপদস্থ কর্তারা পার্থের সেল পরিদর্শনে গেলে প্রাক্তন মন্ত্রী তাদের জানান, তিনি তেলেভাজা খেতে চান। তখন চিকিৎসক আপত্তি জানালেও পার্থ তা শুনতে নারাজ ছিলেন। অবশেষে চিকিৎসকের অনুমতি নিয়েই তিনি গরম গরম চপ আর বেগুনি খান। 

জেলের চিকিৎসকদের মতে, এক দিন তেলেভাজা খাওয়া যেতে পারে। তাতে তেমন শারীরিক অসুবিধা হওয়ার কোনও কারণ নেই।

তবে সোমবার সকালে চিকিৎসকেরা পার্থকে পরীক্ষা করতে গেলে প্রাক্তন মন্ত্রী তাদের জানান, তার কোমরে ও হাঁটুতে যন্ত্রণা হচ্ছে। তার সেই বক্তব্যের ভিত্তিতে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরকে চিঠি দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এক কারাকর্তা।

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গ সরকারি শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগে গত ২৩ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয় পশ্চিমবঙ্গের সাবেক শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে। ২৪ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয় তার সহযোগী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। এ সময় তল্লাশি চালিয়ে অর্পিতার টালিগঞ্জ এবং বেলঘড়িয়া থেকে উদ্ধার হয় প্রায় ৫২ কোটি রুপি এবং সোনা ও হীরার গহনাসহ নামে-বেনামে প্রচুর সম্পত্তি।