তীব্র তাপপ্রবাহ ও অনাবৃষ্টির মধ্যে চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রদেশ সিচুয়ানে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন লাখ লাখ মানুষ।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে এ তথ্য জানায় বিবিসি।

খবরে বলা হয়, তাঝোউ শহরে প্রায় ৫৪ লাখ মানুষের বসবাস। সেখানে এ তাপপ্রবাহের মধ্যে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। যা স্থায়ী হয় প্রায় তিন ঘণ্টার মতো।

কর্মকর্তারা বলছেন, ঘরবাড়িতে বিদ্যুৎ সরবরাহ ঠিক রাখতে প্রদেশের কলকারখানাগুলো উৎপাদন কমাতে বা বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছে।

এদিকে সিচুয়ান ও এর আশপাশের প্রদেশগুলোতে সাম্প্রতিক সময়ে তাপমাত্রা ছাড়িয়েছে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কর্মকর্তাদের ভাষ্য, শুকিয়ে প্রায় অর্ধেক হয়ে গেছে জলবিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহৃত জলাধারগুলো। 

এদিকে তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অফিস ও ঘরবাড়িতে বিদ্যুতের চাহিদা বেড়েছে। যার কারণে বিদ্যুৎ সরবরাহ সংস্থাগুলো পড়েছে বেকায়দায়।

ইয়াংসি নদী— যা এশিয়ার দীর্ঘতম নৌপথ, এতে রেকর্ড পরিমাণ কমেছে পানি।  কিছু অংশে স্বাভাবিকের তুলনায় অর্ধেকেরও কম বৃষ্টি হয়েছে।

১৮৬৫ সালে হিসাব রাখা শুরু হওয়ার পর থেকে হুবেই প্রদেশের উহানে এ নদীর স্তর অবস্থান করছে সর্বনিম্ন পর্যায়ে।

তবে সুখবর হলো— এখনো খাবার পানি সরবরাহের ক্ষেত্রে কোনো ঘাটতি দেখা দেয়নি। কিন্তু চাষের ক্ষেত্রে রয়েছে পানির সংকট।