দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক কর্মকর্তারা বলেছেন, উত্তর কোরিয়া সাগর অভিমুখে একটি সন্দেহজনক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে। আজ রোববার উত্তর কোরিয়া তার পূর্ব উপকূল থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি ছোড়ে। দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষ্য সত্য হলে গত জুনের পর এটাই হবে উত্তর কোরিয়ার প্রথম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা। খবর বিবিসির। 

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী বলছে, স্থানীয় সময় আজ সকাল ৭টার ঠিক আগে উত্তর কোরিয়ার একটি স্বল্পপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার বিষয়টি তারা শনাক্ত করেছে। পিয়ংইয়ং থেকে ১০০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বের উত্তরের একটি স্থান থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি ছোড়া হয়। ক্ষেপণাস্ত্রটি ৬০ কিলোমিটার উচ্চতা দিয়ে উড়ে প্রায় ৬০০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে।

যৌথ মহড়ায় অংশ নিতে মার্কিন বিমানবাহী একটি রণতরী দক্ষিণ কোরিয়ায় আসার দিন কয়েকের মাথায় সন্দেহজনক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া। এদিকে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস দক্ষিণ কোরিয়া সফরে আসছেন।

উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষার ওপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। উত্তর কোরিয়ার এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে একটি গুরুতর উসকানিমূলক কাজ হিসেবে অভিহিত করেছে সিউল।

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, তাদের বাহিনী পূর্ণ প্রস্তুতির ভঙ্গি বজায় রেখেছে। নজরদারি ও সতর্কতা জোরদার করা হয়েছে। তারা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সহযোগিতা করছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার পূর্ব উপকূলে যৌথ মহড়ায় অংশ নিতে গত শুক্রবার দেশটির দক্ষিণের বন্দর শহর বুসানে এসে ভেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের পারমাণবিক শক্তিচালিত বিমানবাহী রণতরি ইউএসএস রোনাল্ড রিগ্যান। কোরীয় উপদ্বীপে শান্তি-স্থিতিশীলতার স্বার্থে এই মহড়া হবে বলে উল্লেখ করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার নৌবাহিনী।

অঞ্চলটি সফর করবেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। এর অংশ হিসেবে তিনি দক্ষিণ কোরিয়া যাবেন। তিনি জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের শেষকৃত্যে অংশ নেবেন।