ব্রাজিল-তিউনিসিয়া ম্যাচের পাশে লেখা থাকবে প্রীতি শব্দটি। তবে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার এবং কোচ তিতের কাছে এটি বিশ্বকাপের শেষ প্রস্তুতি এবং শেষ পরীক্ষার ম্যাচ। ওই ম্যাচ নতুন কৌশলে খেলাতে যাচ্ছেন কোচ তিতে।

সংবাদ মাধ্যমের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ঘানা ম্যাচের শুরুর একাদশের নয়জন ফুটবলার এই ম্যাচেও শুরু করবেন। যে দু’জনকে বিশ্রাম দেওয়া হতে পারে তারা হলেন রিয়াল মাদ্রিদের ডিফেন্ডার এদের মিলিতাও এবং উইঙ্গার ভিনিসিয়াস জুনিয়র।

মিলিতাও গত ম্যাচে রাইট ব্যাক হিসেবে খেলেছেন। দারুণ পারফরম্যান্স দিয়েছেন তিনি। ওই জায়গায় একাদশে ঢুকতে যাচ্ছেন জুভেন্টাসে খেলা ব্রাজিলের নিয়মিত রাইট ব্যাক দানিলো। যদিও তার রক্ষণ সামলানো নিয়ে নানান সময় প্রশ্ন উঠেছে।

ভিনিসিয়াসের লেফট উইঙ্গে পাঠানো হতে পারে ওয়েস্ট হ্যামে যাওয়া লুকাস পাকুয়েতাকে। অথবা পাকুয়েতা নাম্বার টেন পজিমন অর্থাৎ প্লে মেকারের ভূমিকা নিতে পারেন। নেইমার জুনিয়রকে খেলানো হতে পারে লেফট উইঙ্গে। সেক্ষেত্রে মিডফিল্ড সামলাবেন ফ্রেড এবং কাসেমিরো।

কোচ তিতের দল সাজানো থেকে পরিস্কার পাকুয়েতা তার পরিকল্পনার বড় অংশ। তার কারণ নেইমারের সঙ্গে তার ‘ওয়ান অন ওয়ানে’ দুর্দান্ত রসায়ন। তবে কোচ এই ম্যাচে নেইমারকে বিশ্রাম দিতে পারতেন। নেইমারহীন কঠিন জীবনের সঙ্গে তার তরুণ শিষ্যদের পরিচয় করিয়ে দিয়ে দেখতেই পারতেন! 

ব্রাজিলের সম্ভাব্য একাদশ: অ্যালিসন (গোলরক্ষক), দানিলো (রাইট ব্যাক), মার্কুইনোস (সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার), থিয়াগো সিলভা (সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার), অ্যালেক্স টেলাস (লেফট ব্যাক), কাসেমিরো (ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার), ফ্রেড (ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার), পাকুয়েতা (সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার), নেইমার (লেফট উইঙ্গাা), রিচার্লিসন (স্ট্রাইকার), রাফিনহা (রাইট উইঙ্গার)।