বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে রাশিয়া থেকে যে প্রধান দুটি পাইপলাইনের সাহায্যে ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ করা হয় তাতে ছিদ্র হওয়ার ঘটনাকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) নাশকতা বলে উল্লেখ করেছে। তবে এজন্য তারা রাশিয়াকে দায়ী করেনি। খবর বিবিসির। 

ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান উরসুলা ফন ডের লেয়েন বলেছেন, গ্যাস সরবরাহে উদ্দেশ্যমূলকভাবে এই বিঘ্ন ঘটানোর 'সম্ভাব্য কড়া জবাব' দেওয়া হবে।

তবে এর আগে ইউক্রেন এই ঘটনাকে 'সন্ত্রাসী আক্রমণ' হিসেবে উল্লেখ করে রাশিয়াকে অভিযুক্ত করেছে।

গত মঙ্গলবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের একজন উপদেষ্টা বলেছেন, এটি রাশিয়ার পরিকল্পিত সন্ত্রাসী হামলা ছাড়া কিছু নয়। এটি ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওপরেও হামলা।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন অভিযোগ করে আসছিল যে, রাশিয়া তাদের গ্যাস সরবরাহ এবং নর্ড স্ট্রিম পাইপলাইনকে পশ্চিমা দেশগুলোর বিরুদ্ধে যুদ্ধের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন বলেছেন, তিনি মনে করেন পাইপলাইনে ছিদ্র হয়ে যাওয়ার এই ঘটনা ইউরোপের জ্বালানি নিরাপত্তার ওপর উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলবে না।

এই দুটি পাইপলাইনের কোনোটি দিয়েই বর্তমানে গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে না. তবে দুটো পাইপেই গ্যাস আছে। পাইপলাইনে ছিদ্র হওয়ার ঘটনায় ব্লিনকেন রাশিয়াকে সরাসরি অভিযুক্ত করেননি। তবে তিনি বলেছেন, এ নিয়ে তদন্ত চলছে। প্রাথমিক রিপোর্টে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে হামলা বা নাশকতার কারণে এরকমটা হয়ে থাকতে পারে। কিন্তু এটা এখনো নিশ্চিত নয়।

তিনি বলেন, ইউরোপ ও সারা বিশ্বের জ্বালানি নিরাপত্তার জন্য তারা সর্বক্ষণ কাজ করে যাচ্ছেন। 


ইউরোপিয়ান কাউন্সিলের প্রধান চার্লস মিশেলও এসব কথার প্রতিধ্বনি করেছেন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে জ্বালানি সরবরাহ অস্থিতিশীল করে তোলার জন্য নর্ড স্ট্রিম পাইপলাইনে এই নাশকতা চালানো হয়েছে।

ডেনমার্কের উপকূলে পাইপলাইনটিতে এসব ছিদ্র তৈরি হয়েছে। ডেনমার্কের জ্বালানি মন্ত্রী ড্যান ইওর্গেনসেন বলেছেন, পাইপ দুটি থেকে গ্যাস পুরোপুরি বের হয়ে যাওয়া পর্যন্ত এই ছিদ্র থাকবে। তিনি ধারণা করেছেন এজন্য এক সপ্তাহের মতো সময় লাগতে পারে। 

এরপরেই এ নিয়ে তদন্ত শুরু হবে।

নর্ড স্ট্রিম টু পাইপটি যারা পরিচালনা করেন সোমবার দুপুরে তারা লক্ষ্য করেন, পাইপলাইনটিতে গ্যাসের চাপ কমে গেছে। এরপরে ডেনিশ কর্তৃপক্ষ বর্নহোম দ্বীপের কাছ দিয়ে চলাচল না করার জন্য জাহাজগুলোকে নির্দেশ দেয়। মঙ্গলবার নর্ড স্ট্রিম ওয়ান পাইপলাইনের পরিচালনাকারীরা জানান, সমুদ্রের নিচে তাদের পাইপলাইনেও 'নজিরবিহীন' ক্ষতি হয়েছে।

নর্ড স্ট্রিম ওয়ান পাইপলাইনে রয়েছে দুটি সমান্তরাল পাইপ। অগাস্ট মাসে রাশিয়া এই পাইপলাইন দিয়ে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়ার পর থেকে এখান দিয়ে কোনো গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে না।

রাশিয়া বলছে, রক্ষণাবেক্ষণ-জনিত সমস্যার কারণে তারা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। কিন্তু ইউরোপীয় ইউনিয়নের অভিযোগ, রাশিয়া গ্যাসের এই সরবরাহকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।

নর্ড স্ট্রিম ওয়ান পাইপ ৭৪৫ মাইল লম্বা। রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গের কাছ থেকে বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে এটি গিয়ে পৌঁছেছে উত্তর-পূর্ব জার্মানিতে। ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক আক্রমণ শুরু হওয়ার পর অন্য পাইপলাইন নর্ড স্ট্রিম টু-এর নির্মাণকাজ শেষ হওয়া সত্ত্বেও এটি দিয়ে গ্যাস সরবরাহ শুরু হয়নি।

ভূকম্পবিদরা বলছেন, পাইপলাইনে ছিদ্র হওয়ার কথা জানার আগে পানির নিচে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ডেনমার্কের প্রতিরক্ষা কমান্ড থেকে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে বাল্টিক সাগরের উপরি-পৃষ্ঠে বুদবুদ উঠতে দেখা যাচ্ছে। এর সর্বোচ্চ ব্যাস এক কিলোমিটার। সুইডেনের জাতীয় ভূকম্পন কেন্দ্রের বিওর্ন লুন্দ বলেছেন, কোনো সন্দেহ নেই যে, সেখানে বিস্ফোরণ হয়েছিল।