ভারতের উত্তর প্রদেশের কানপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৩১ জন নিহত ও অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার রাতে এ দুর্ঘটনা দুটি ঘটে।

কানপুরের উন্নাওয়ের চন্দ্রিকা দেবী মন্দির থেকে ফেরার সময় ঘটামপুর এলাকায় একটি ট্রাক্টর উল্টে প্রথম দুর্ঘটনাটি ঘটে। ট্রাক্টরটিতে ৫০ জন তীর্থযাত্রী ছিলেন। 

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, তীর্থযাত্রা থেকে ফেরার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ২৬ জন নিহত ও ২০ জন আহত হয়েছেন। নিহতদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু।  

পুলিশ জানায়, আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় গাফিলতির জন্য সরহ থানার ইনচার্জকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর মতে, দুর্ঘটনাস্থলে পুলিশের যেতে দেরি হওয়ার কারণে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

এছাড়া শহরের আহিরওয়ান ফ্লাইওভারের কাছে আরেক দুর্ঘটনায় পাঁচজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার রাতে ফ্লাইওভারের কাছে দ্রুতগামী একটি ট্রাক একটি টেম্পোকে ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কানপুর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার আনন্দ প্রকাশ তিওয়ারি বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে এবং ট্রাকটিকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হচ্ছে। 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৬ জন তীর্থযাত্রীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন এবং দুর্ঘটনায় নিহতের পরিবারের সদস্যদের ২ লাখ রুপি ও আহতদের ৫০ হাজার রুপি করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।