ইন্দোনেশিয়ার একটি ফুটবল স্টেডিয়ামে পুলিশের সঙ্গে সমর্থকদের সংঘর্ষের পর পদদলিত হয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭৪ জনে। ম্যাচ শেষে সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ার পর পদদলিত হয়ে প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে।

শনিবার রাতে পূর্ব জাভার মালাং শহরে কানজুরুহান ফুটবল স্টেডিয়ামে আরেমা এফসি প্রতিদ্বন্দ্বী পারসেবায়া সুরাবায়ার কাছে হেরে যাওয়ার পর পরাজিত দলের সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয় বলে দেশটির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বিবিসি।

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, খেলার শেষ বাঁশি বাজার সঙ্গে সঙ্গে কয়েক হাজার ফুটবল সমর্থক মাঠে ঢুকে পড়ে।

পুলিশের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, ম্যাচের আরেমা এফসি হেরে যাওয়ার পর কয়েক হাজার সমর্থক মাঠে ঢুকে পড়ে এবং এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায়। এ ঘটনায় দু'জন পুলিশ সদস্য নিহত হওয়ার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ টিয়ার শেল ছোড়ে।

পূর্ব জাভার পুলিশ প্রধান নিকো আফিনতা জানান, দাঙ্গাকারীদের মাঠ থেকে গ্যালারিতে ফেরত পাঠাতে পুলিশ টিয়ার শেল ছুড়তে শুরু করে। এ সময় হুড়োহুড়িতে অনেকে পদদলিত হয় এবং সেখানে দমবন্ধ করা একটি পরিস্থিতির তৈরি হয়।

নিহতদের মধ্যে দু'জন পুলিশ কর্মকর্তাও রয়েছেন জানিয়ে নিকো আফিনতা বলেন, '৩৪ জন স্টেডিয়ামের ভেতরে ও বাকিরা হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান।'

তিনি জানান, সবাই একটি স্থান দিয়েই বের হওয়ার চেষ্টা করছিলো। ফলে প্রচণ্ড ভিড়ের এক পর্যায়ে অক্সিজেনের অভাবে দমবদ্ধ হওয়ার মতো পরিস্থিতির তৈরি হয়।

দেশটির নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী বলেছেন স্টেডিয়ামটিতে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে চার হাজার দর্শক বেশি ছিলো।

এ ঘটনা ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল ভাবমূর্তিতে কালিমা মেখে দিয়েছে উল্লেখ করে দেশটির ফুটবল ফেডারেশন জানিয়েছে, ঘটনাটি তদন্ত করা হবে।

এ ছাড়া এ ঘটনার পর ইন্দোনেশিয়ার শীর্ষ ফুটবল লিগ এক সপ্তাহের জন্য স্থগিত করার কথা জানিয়েছে দেশটির ফুটবল ফেডারেশন।