নারী এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারত। সিলেটে সেমিফাইনালে থাইল্যান্ডকে ৭৪ রানে হারিয়েছে হরমনপ্রীতের দল। আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৪৮ রান করে ভারত। জবাবে ৯ উইকেটে ৭৪ রান তোলে থাই মেয়েরা। আগামী শনিবার ফাইনালে ভারত খেলতে নামবে পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা ম্যাচের বিজয়ী দলের বিরুদ্ধে।

রান তাড়ায় নেমে শুরু থেকেই বেশ চাপে ছিল থাইল্যান্ড। স্কোরবোর্ডে ২১ রান তুলতেই তারা হারিয়ে ফেলে চার উইকেট। তবে পঞ্চম উইকেটে সেই ধাক্কা কিছুটা সামাল দেয়ার চেষ্টা চালান নিতয়া বুচানথাম ও অধিনায়ক নারোইমল চাওয়ী। এ দুজন গড়েন ৪২ রানের জুটি। দলীয় ৬৩ রানে অধিনায়ক চাওয়ী আউট হলে ভাঙে জুটি।  

এরপর দ্রুতই উইকেট হারাতে থাকে থাইল্যান্ড। দলীয় ৭১ রানে তিন উইকেট হারায় থাই মেয়েরা। শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেটে ৭৪ রানে গিয়ে থামে থাই মেয়েদের ইনিংস। থাইল্যান্ডের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান আসে নাত্তায় বুচাথামের ব্যাট থেকে। 

ভারতের হয়ে ৩টি উইকেট নেন দীপ্তি শর্মা। ২টি উইকেট নেন রাজেশ্বরী গায়কোয়াড। ১টি করে উইকেট নেন রেনুকা সিং, স্নেহ রানা ও শেফালি ভার্মা।

এর আগে ওপেনার শেফালি ও অধিনায়ক হরমানপ্রীত কৌরের ব্যাটে ভর করে চ্যালেঞ্জিং স্কোর ছোড়ে ভারত। মাত্র ২৮ বলে ৪২ রান করেন শেফালি। এ ছাড়া সঙ্গে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কারও বাগিয়ে নেন শেফালি। হরমানপ্রীত ৩০ বলে ৩৬ রান করেন। জেমিমার ব্যাট থেকে আসে ২৭ রান। ১৭ রানে অপরাজিত ছিলেন পূজা ভাস্কর। 

থাই মেয়েদের হয়ে সর্নারিন টিপুচ নেন সর্বোচ্চ ৩ উইকেট। ১টি করে উইকেট নেন নাত্তায়া বুচাথাম, পান্নিতা মায়া ও থিপাতচা।