ইউক্রেনের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি স্থাপনায় ফের হামলা চালিয়েছে রুশ বাহিনী। এতে রাজধানী কিয়েভের একটি এলাকাসহ দেশটির কয়েকটি অঞ্চলে বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে।

মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৯টার পরপরই রাজধানীতে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। এ সময় দিনিপ্রো নদীর কাছে একটি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে কুণ্ডলী পাকিয়ে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। কিয়েভের পশ্চিমে ঝাইতোমিরে বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। দিনিপ্রোতে দুটি স্থাপনা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ঝাইতোমিরের মেয়র জানিয়েছেন, শহরে কোনো বিদ্যুৎ ও পানি নেই। আপৎকালীন বিদ্যুৎ দিয়ে চলছে হাসপাতালের কার্যক্রম।

জানা গেছে, বিদ্যুৎকেন্দ্রে হামলার কারণে দিনিপ্রো নদীর তীরবর্তী রাজধানী কিয়েভের একটি এলাকায় বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। ইউক্রেনের মধ্যাঞ্চলীয় শহর দিনিপ্রোতেও বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ বিঘ্নিত হয়েছে। বাসিন্দাদের বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যয়ী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সেখানকার কর্মকর্তারা।

উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় খারকিভ শহরে গোলাবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। দক্ষিণাঞ্চলীয় জাপোরিঝঝিয়াতেও হামলা চালানো হয়েছে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা।

এর আগের দিন সোমবার রাজধানী কিয়েভ ও উত্তরাঞ্চলীয় সুমি শহরে ড্রোন হামলা চালানো হয়। কিয়েভে হামলায় পাঁচজন নিহত হন। সুমি শহরে নিহত হন চারজন। এদিন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় হামলার কারণে কয়েক শ শহর ও গ্রাম বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। রাজধানীতে ‘কামিকাজে (আত্মঘাতী)’ ড্রোন হামলার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সর্বশেষ হামলাগুলোর ঘটনা ঘটল।