ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মুক্তি পাচ্ছেন থাকসিন সিনাওয়াত্রা

মুক্তি পাচ্ছেন থাকসিন সিনাওয়াত্রা

থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৫:১০

শিগগিরই মুক্তি পাচ্ছেন থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা। মঙ্গলবার দেশটির বিচারমন্ত্রী তাউই সোদসং জানিয়েছেন, ৭৪ বছর বয়সী থাকসিনকে শিগগির মুক্তি দেওয়া হতে পারে। 

তিনি বলেন, গুরুতর অসুস্থ বা ৭০ বছরের বেশি বয়সীদের কারাভোগের ছয় মাসের মধ্যে মুক্তি দেওয়া হয়। থাকসিনও তাদের একজন। আরও ৯৩০ কারাবন্দিসহ তাকে মুক্তি দেওয়া হবে। খবর- আলজাজিরা 

শনিবারের পর যেকোনো দিন তিনি মুক্তি পেতে পারেন বলে দেশটির গণমাধ্যমে বলা হয়েছে। 

স্বেচ্ছা নির্বাসনে ১৫ বছর বিদেশে থাকার পর গত বছরের ২২ আগস্ট দেশে ফিরেই গ্রেপ্তার হন থাকসিন। দুর্নীতি মামলায় আগেই তাকে ৮ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিলেন থাইল্যান্ডের সুপ্রিম কোর্ট। কারাগারে বন্দি হওয়া থেকে বাঁচতে তিনি ২০০৮ সালে দেশ ছেড়েছিলেন। গত বছরের আগস্টের শেষে থাকসিন সিনাওয়াত্রার আট বছরের কারাদণ্ড কমিয়ে এক বছর করে দেন দেশটির রাজা মহা ভাজিরালংকর্ন। 

থাইল্যান্ডের তত্ত্বাবধায়ক আইনমন্ত্রী উইসানু ক্রি-এনগামের সিনিয়র সহকারী জানিয়েছিলেন, দণ্ডপ্রাপ্ত থাকসিন ক্ষমার জন্য আবেদন করেছেন। থাকসিনের পরিবারের পক্ষ থেকেই ক্ষমার জন্য ওই অনুরোধপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। থাইল্যান্ডের সংবিধান অনুযায়ী রাজকীয় ক্ষমার অনুরোধ অবশ্যই সংশোধন বিভাগের মাধ্যমে আইনমন্ত্রীর কাছে জমা দিতে হয়। এরপর এটি বিবেচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী। বিবেচনার পর প্রধানমন্ত্রীকে অবশ্যই থাইল্যান্ডের রাজা মহা ভাজিরালংকর্নের কাছে তা জমা দিতে হবে।

থাকসিন থাইল্যান্ডের দুবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। ২০০৬ সালে এক সামরিক অভ্যুত্থানে তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন। আট বছর আগে ওই অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর পরিবারটির জ্যেষ্ঠ সদস্যরা এখন প্রত্যক্ষ রাজনীতি থেকে এক প্রকার বিচ্ছিন্ন হয়ে রয়েছেন। আদালতে দণ্ডিত হয়ে দেশে ফিরতে পারছেন না সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা। নির্বাসনে আছেন তাঁর ছোট বোন ইংলাক সিনাওয়াত্রাও। এ অবস্থায় পরিবারটির পরবর্তী প্রজন্মের সদস্য হিসেবে দলটির নেতৃত্বে উঠে আসছেন তাঁর কনিষ্ঠ কন্যা পায়েথংতার্ন।

আরও পড়ুন

×