প্রয়াত নাট্যাচার্য সেলিম আল দীনের এক মহাকাব্যিক সৃষ্টি ‘কিত্তনখোলা’। কলকাতার নাট্যদল ইচ্ছেমতো তাদের নতুন প্রযোজনার জন্য এই ‘কিত্তনখোলা’কেই বেছে নিয়েছেন। বাংলাদেশের খ্যাতিমান নাট্যকার সেলিম আল দীনের লেখা এ নাটকের একটি প্রদর্শনী হয় গত  ১০ মে একাডেমি অব ফাইন আর্টসে এবং আজ (১৪ মে) মধুসূদন মঞ্চে আরেকটি প্রদর্শন হবে। কলকাতায় নাটকটির নির্দেশনা দিচ্ছেন সৌরভ পালোধী।  

কিত্তনখোলা নাটকে চলমান জীবনের চিত্র হাজির করেছেন সেলিম আল দীন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় থেকে কিত্তনখোলা গ্রামে মনাই বাবার মাজার গড়ে ওঠে। তখন থেকেই বাবার মাজারকে কেন্দ্র করে প্রতিবছর মাঘী পূর্ণিমায় তিন দিনের মেলা অনুষ্ঠিত হয়। দূর-দূরান্তের গ্রাম থেকে নানা মানুষের আগমন ঘটে। কিত্তনখোলা গ্রামের এই মেলাকে কেন্দ্র করে তৈরি হয় কাহিনি, যে কাহিনি লোকসংস্কৃতির ধারক হয়ে সমাজের নগ্ন রূপকে সামনে নিয়ে আসে। যেখানে জাতবৈষম্য বা সামাজিক অসাম্য মানুষের জীবনে অভিশাপ হয়ে নেমে আসে। সেই অভিশাপের আগুনে পুড়তে থাকে সম্পর্ক, বন্ধুত্ব, প্রেম।

‘কিত্তনখোলা’ নাটকের নির্দেশক সৌরভ পালোধী এ নাটক নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী। শুধু একটি নাটক করা নয়; তাঁর মতে, আজকের প্রেক্ষাপটেও এ নাটক সাধারণ মানুষের জীবনসংগ্রামের কথাই বলবে। তিনি বলেন, ‘সেলিম আল দীনের এই নাটকটি আমাদের দলে অনেক দিন আগে পড়া হয়েছিল, কিন্তু তখন নাটকটি মঞ্চায়ন করার কথা ভাবিনি।  প্রায় দুই বছর ধরে আমরা নাটকটি নিয়ে কাজ করছি। এরপরই মঞ্চে আনার সাহস দেখিয়েছি। লোকসংগীতের আঙ্গিকে দেবদীপ মুখোপাধ্যায় এখানে নতুন গান তৈরি করেছেন, গানের কথাও নতুন করে লেখা হয়েছে। নাটকে দিন-ক্ষণ-স্থান এমনভাবে আনা হয়েছে, যাতে সেটা সব ক্ষেত্রেই প্রাসঙ্গিক মনে হতে পারে। নাটকের সংগীত মঞ্চে সরাসরি বাজানো হবে। গায়ক বা মিউজিশিয়ানরাও এ নাটকের কাহিনির অংশ হয়ে মঞ্চে থাকবেন। সংগীতনির্ভর নাটককে এভাবে মঞ্চে উপস্থিত করাটা আমাদের কাছে বেশ চ্যালেঞ্জিং।’ 

কিত্তনখোলা নাটকে অভিনয় করছেন শঙ্কর দেবনাথ, অনুজয় চট্টোপাধ্যায়, শুভাশিস খামারু, কৃষ্ণেন্দু সাহা, শান্তনু মণ্ডল, সুচরিতা মান্না প্রমুখ।