ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

মা দিবসের প্রবক্তাই কেন এর বিপক্ষে চলে গেলেন

মা দিবসের প্রবক্তাই কেন এর বিপক্ষে চলে গেলেন

মার্কিন নাগরিক আনা জার্ভিস। ছবি: ওয়াশিংটন পোস্ট

সমকাল অনলাইন

প্রকাশ: ১২ মে ২০২৪ | ১৮:৪০

প্রতিবছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বিশ্বজুড়ে পালিত হয় মা দিবস। তবে প্রথম অনানুষ্ঠানিকভাবে মা দিবস পালনের প্রচলন শুরু হয় বিশ শতকের শুরুর দিকে যুক্তরাষ্ট্রে। আজকের এই মা দিবসটির প্রবর্তনে যিনি লড়াই শুরু করেন তিনি হলেন মার্কিন নাগরিক আনা জার্ভিস। তবে মাকে ভালোবাসার জন্য বিশেষ দিনের প্রয়োজন হয় না। তার পরও এই দিন সন্তানেরা নানাভাবে মা দিবস পালন করে থাকে। তবে আন্না জার্ভিস মা দিবসটির বাণিজ্যিকীকরণে খুবই ব্যথিত হন এবং বাণিজ্যিকীকরণের বিরুদ্ধে লড়াই করেন। কিন্তু তিনি পেরে উঠেননি, তাই অনেকটা আক্ষেপ নিয়ে বিদায় নেন মা দিবসের ‘প্রবর্তক’ আনা জার্ভিস।

বাণিজ্যিকীকরণের বিরুদ্ধে লড়াই

মা দিবস হিসেবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আইন পাসে খুশি হলেও বিজয় ক্ষেপেছিলেন দিবসটির ‘প্রবর্তক’ আনা জার্ভিস। কারণ দিবসকে পরের দশকে ফুলের দোকান মালিক ও কার্ড প্রস্তুতকারীরা বাণিজ্যিকীকরণ করেন, যা মানতে পারেননি আনা জার্ভিস। ১৯৮৬ সালে ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, দিবসটির বাণিজ্যিকীকরণে ক্ষুব্ধ আনা জার্ভিস বলেন, ‘তারা আমার মা দিবসটি বাণিজ্যিকীকরণ করছে। এটা আমার উদ্দেশ্য ছিল না।’

ফুলের দোকান মালিক ও কার্ড প্রস্তুতকারীদের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করে মায়ের মতো আক্ষেপ নিয়ে আনা জার্ভিস ১৯৪৮ সালে মৃত্যু বরণ করেন। মা দিবস ‘প্রবর্তনে’ লড়াই করা স্বাধীনচেতা জার্ভিস ব্যক্তি জীবনে ছিলেন অবিবাহিত।

মা দিবসের ‘প্রবর্তক’ কে এই আনা জার্ভিস

আনা জার্ভিস ১৮৬৪ সালে পশ্চিম ভার্জিনিয়ার ওয়েবস্টারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একজন পরিচ্ছন্নতাকর্মী। মা দিবস পালনে তিনি অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন মা অ্যান রিভস জার্ভিসের কাছ থেকে। অ্যান রিভস সানডে স্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন। অ্যান রিভস যুবতীদের শেখাতে কীভাবে বাচ্চাদের যত্ন নিতে হয়। 

যেভাবে এল মা দিবস

মার্কিন ইতিহাসবিদদের মতে, ১৮৭৬ সালে অ্যান রিভস জার্ভিস মনে-প্রাণে চাইছিলেন মায়েদের ‘মানবতার সেবার’ প্রতিদান স্মরণে একটি দিবস থাকুক। কিন্তু তিনি বেঁচে থাকতে কেউ মা দিবস প্রবর্তনে এগিয়ে আসেনি। অনেকটা আক্ষেপ নিয়ে ১৯০৫ সালে মারা যান রিভস জার্ভিস। মায়ের মৃত্যুর ২৮ বছর পর আনা জার্ভিস তার মায়ের সমাধিস্থলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তিনিই মায়ের আক্ষেপ ঘুচাবেন এবং প্রবর্তন করবেন মা দিবস।

মায়ের সমাধিস্থলে দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে জার্ভিস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিটি রাজ্যের গভর্নরের কাছে চিঠি লিখেছিলেন এবং সেই চিঠিতে তিনি মে মাসের দ্বিতীয় বোববারকে মা দিবস হিসাবে ঘোষণার উদাত্ত আহ্বান জানান। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে আনার মায়ের মৃত্যুর ঠিক তিন বছর পর অর্থ্যাৎ ১৯০৮ সালের এক সকালে উইসকনসিনের গ্রাফটনের সেন্ট অ্যান্ড্রুস মেথডিস্ট এপিস্কোপাল চার্চে প্রথম মা দিবসের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করা হয়। ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আন্না সে বছর জন্য তার মায়ের প্রিয় ফুল কার্নেশন কিনেছিলেন এবং মা দিবসের অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন।

এখানেই শেষ নয়, ১৯১০ সালে পশ্চিম ভার্জিনিয়ায় মা দিবসকে ছুটির দিন হিসাবে মনোনীত করে একটি আইন পাস করা হয়, যা যুক্তরাষ্ট্রের অন্য রাজ্যগুলো অনুসরণ করে। কিন্তু আনা জার্ভিস যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে মা দিবসকে ‘জাতীয় ছুটির’ দিনে পরিণত করার ইচ্ছা পোষণ করেন এবং তিনি এজন্য দেশটির পরবর্তী রাষ্ট্রপতিদের কাছে লিখিত আবেদন করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১৯১৪ সালে মার্কিন কংগ্রেস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে মা দিবস হিসাবে ঘোষণা করে একটি আইন পাস করে। এর পর থেকে মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বিশ্বে মা দিবস হিসেবে পরিচিত লাভ করে।

তথ্য সূত্র: ওয়াশিংটন পোস্ট

আরও পড়ুন

×