ঢাকা সোমবার, ২০ মে ২০২৪

সু চির দল বিলুপ্ত করতে চায় জান্তা নিয়ন্ত্রিত নির্বাচন কমিশন

সু চির দল বিলুপ্ত করতে চায় জান্তা নিয়ন্ত্রিত নির্বাচন কমিশন

অং সান সু চিকে আটকের পর তার সমর্থকদের বিক্ষোভ- ফাইল ছবি/এপি

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ মে ২০২১ | ০৪:৪৭

মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রাসিকে (এনএলডি) বিলুপ্ত করতে চাইছে দেশটির সামরিক সরকার নিয়ন্ত্রিত নির্বাচন কমিশন। গত বছরের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে অবৈধ পন্থা অবলম্বনের অভিযোগে এ পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। শুক্রবার নির্বাচন কমিশনের উদ্ধৃতি দিয়ে এ সংবাদ দিয়েছে মিয়ানমার নাউ।

সংবাদ মাধ্যমটি জানিয়েছে, মিয়ানমারের রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে বৈঠক করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তবে ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিল না সু চির দল এনএলডিসহ বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল।

বৈঠকে জান্তাসমর্থিত নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান থেইন সোয়ে বলেন, গত বছরের নির্বাচনে এনএলডি ব্যাপক জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছে। তাই আমরা ওই দলটির নিবন্ধন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছি। যারা এই জালিয়াতির হোতা আমরা তাদের বিশ্বাসঘাতক হিসেবে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নেব।

তবে জান্তা সরকারের মুখপাত্র এবং এনএলডি ও অন্যান্য দলের সমন্বয়ে গঠিত জাতীয় সরকারের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে এ নিয়ে এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। মিলিটারি সমর্থিত ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি বলেছে, তারা ওই বৈঠকে অংশ নিয়েছে। তবে এর সর্বশেষ সিদ্ধান্ত এখনও জানতে পারেনি।

১৯৮৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর সু চির নেতৃত্বে গঠিত দল এনএলডি কয়েক দশক ধরে আন্দোলন চালিয়ে অবশেষে ২০১৫ সালের  সাধারণ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ক্ষমতায় আসে। ২০২০ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ফের বিজয়ী হয় তারা। তবে সামরিক বাহিনী দলটির বিরুদ্ধে নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ তুলো অভ্যুত্থানের মাধ্যমে তাদের ক্ষমতা থেকে উচ্ছেদ করে। অবশ্য তৎকালীন নির্বাচন কমিশন সামরিক বাহিনীর দাবি প্রত্যাখ্যান করেছিল।

এদিকে নির্বাচিত সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করাটা ভালোভাবে নেয়নি মিয়ানমারের গণতন্ত্রকামী জনগণ। তারা সামরিক সরকারে বিরুদ্ধে রাজপথে তীব্র আন্দোলন শুরু করে। সামরিক সরকার প্রতিবাদী জনগণের বিপক্ষে কঠোর অবস্থান নেয়। এ পর্যন্ত মিয়ানমারে ৮০০-এর বেশি মানুষ নিহত হয়েছে পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের গুলিতে।

আরও পড়ুন

×