একে তো চৈত্র রজনী তার পরে করোনা
আমাকে তোমার বুকে প্রবলভাবে ধরো না-
এই চৈত্রে মোর কাছে কোনো পদ নাই,
পদাবলীও
রাগঢাক নাই নাই, এইকথা তারে বলিও...

যদিও মহুয়ার গন্ধে মাতাল হয়েছে প্রকৃতি
কিন্তু আমার ভিতর কোনো মাতলামি নাই
সারাদিন একটা সন্ধ্যা সন্ধ্যা ভাব, ভয়ভীতি
রমনায় মহুয়ার গাছগুলিকে এতটা নিঃসঙ্গ
আমি আর কোনোদিন দেখি নাই;
উত্তরে দক্ষিণে যেদিকে চাই হু হু করে অঙ্গ
মধুতে পূর্ণ চৈত্র-সন্ধ্যা যাচ্ছে বৃথাই;

মহুয়ার ফলগুলি কেউ এসে পাড়ে নাই আজও
বাদুর কিংবা পেঁচার পাখনায় ঝরেও পড়েনি
নিচে
ঝুমকো দুল করে তরুণীকে পড়তে দেখিনি
দক্ষিণের বাতাস তাহার কানে বলে নাই বাজো;

এই চৈত্রে মোর কাছে কোনো পদ নাই, পদাবলীও
রাগঢাক নাই, এইকথা তারে বলিও...

মন্তব্য করুন