অন্যমনস্কা
তার আনমনা চাহনির ভেতর
খঞ্জনার পুচ্ছের স্পন্দন,
তার নিঃশব্দ ভাষার ভেতর
বসন্তবাউরির চঞ্চুধ্বনি-মুখরতা,
স্বপ্নাদ্য নিরাময় আর সুপ্ত প্রত্যাদেশ।

চোরা স্রোত, চাপা ঢেউ, উদাসী নদীর
বধির শ্রাবক আমি, শ্রবণে অধীর।

অর্থ
সে-কোন গোপন ক্ষিপ্ত গরমে টাকার মর্মদেশ থেকে মুক্ত হয়ে পড়ে তার অর্থ
টাকা পড়ে থাকে জব্দ, নিরর্থক, মুদ্রাদোষে সংকুচিত, বাতিল ও ব্যর্থ।

গর্ভগৃহ
না-জানি কেমন ছিল মায়ের গর্ভ!
তা জানার আকুতিই একদিন টেনে নিয়ে যাবে গর্ভান্তরে, মাটির ভেতরে।

ভাবমূর্তি
দেশ থেকে দেশান্তরে মাটির বিগ্রহ বয়ে বেড়ানো দুস্কর,
পরিযায়ী মানুষের ঈশ্বরেরা তাই হয়ে থাকে নিরাকার
আরতি ও আড়ম্বরহীন।

নিরাকরণ
নেতি নিরাকৃত হয়ে তবেই তো ইতি।
নাস্তি নিরাকৃত হয়ে অস্তি।

জগতের যত জোঁকবৃত্তি, ধূর্ত জোঁকের উত্থান
লবণেই নিরাকৃত, লবণেই হয় অবসান।

বিষয় : পদাবলি মাসুদ খান

মন্তব্য করুন