শীতে কাঁপছি, একান্তে চাই ওম ছড়ানো উষ্ণ আলো,
দেবে আমায়? যেখানে রোজ যত্নে তুমি আবেগ ঢালো,
স্বপ্নে আঁকো শীতলপাটি। সম্পন্ন সেই আগুন জ্ব্বালো,
তাড়াতে চাই মাথার ভিতর ঘনীভূত সবটা কালো!
সমস্ত দিন ব্যস্ত কাটাই, ঘর-বাড়ি সব অগোছালো!
মনে আমার ভাসছে তোমার মুখাবয়বের মায়াজালও,
সত্যি বলছি, ওই আলোতে দগ্ধ হলে লাগতো ভালো!
দেবে তুমি? বাঁধভাঙা সেই উনুনজ্বলা দেহের আলো?

চমকে উঠি, দরজার পর্দা কাঁপছে ভীষণ, কে পালালো?
দেখি নেই কেউ, শূন্য এ ঘর, ভোরের বাতাস ঢেউ বাড়ালো,
ছুঁয়ে দিলো আদর-সোহাগ- হঠাৎ করে রোদ চমকালো,
পাইনি তো টের, ব্যক্তিগত সঞ্চয় থেকে কী হারালো?
অভিমানে মুখ-চোখ জুড়ে বেরুচ্ছে যৎকিঞ্চিৎ আলো,
সেই আলোতে জ্বলছে এখন রাগ-অভিমান, খুব ধারালো।