কী আশ্চর্য! সূর্যকে আজ ভোরে উলঙ্গ হতে দেখলাম।
স্বচ্ছরেখায় রক্তাম্বর লাল- জ্বলজ্বল মণিদীপ্তিময়
বিগব্যাং-এর পর লক্ষ বছর ব্রহ্মা- ছিলো অন্ধকারে;
ফোটনকণা ফোটামাত্রই
তির্যক আলোকরশ্মি ছড়িয়ে পড়লো দিকে দিকে,
তখন সূর্য হলো আশ্চর্য সুন্দর
আদি সুন্দরের প্রতিরূপ!

সময় গড়িয়ে যায়, আলোকণা দেখালো ম্যাজিক
শুরু হলো বিবর্তন- তির্যক রশ্মিকণার
কেবল চতুর্দিকে পদার্থের অণুর সংঘাত, বিবর্তিত রূপ
সূর্যের চারপাশে প্রাকৃতিক গ্যাসীয় বলয়;
তখনও এ ব্রহ্মা- লক্ষ্য করেনি রসায়ন।

এখন আমরা যাকে সভ্যতা বলি- সেই আবরণ
হঠাৎ যেদিন থেকে ঢেকে দিলো মানুষের চোখ
ক্রমে বিলীন হতে-হতে
শূন্যে মিলিয়ে গেলো সুন্দরের দীপ্তিরেখাগুলি
ফুটে উঠলো আরেক সুন্দর- কৃত্রিম রূপকল্পময়!

বিষয় : পদাবলি

মন্তব্য করুন