আগামী ২১ মে   বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে লড়বেন ডিপজল। তার আগে খবর এলো এই অভিনেতা শিল্পী সমিতির সহ-সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। মূলত পরিবেশক সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে লড়তেই  তার এই পদত্যাগ।

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির গঠনতন্ত্রের ৯ নম্বর অনুচ্ছেদের (ত)-এ বলা আছে, ‘শিল্পী সমিতির কোনো পূর্ণ সদস্য চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট অন্য কোনো সমিতির কার্যকরী পরিষদের সদস্য থাকিলে অত্র সমিতির কার্যকরী পরিষদের কোনো পদের জন্যই তিনি যোগ্য বলিয়া বিবেচিত হইবেন না।’

বিষয়টি নিয়ে ডিপজল বলেন,‘আমি এই নিয়ম জানতাম না। জানলে প্রযোজক পরিবেশক সমিতির নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগেই শিল্পী সমিতিতে পদত্যাগপত্র জমা দিতাম। এখন যখন জানলাম, যত তাড়াতাড়ি পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া যায়, দিয়ে দিচ্ছি।’

সমিতির মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান প্যানেলের হয়ে সহ-সভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন  ডিপজল। সেই প্যানেলের একাধিক সদস্য এরই মধ্যে পদত্যাগ করেছেন। পদত্যাগ করা রোজিনার পদত্যাগপত্র সমিতির কার্যকরী পরিষদের দ্বিতীয় মিটিংয়ে কার্যকরও হয়েছে। তার জায়গায় সমিতির সদস্য করা হয়েছে চিত্রনায়ক রিয়াজকে। এবার পদত্যাগ করছেন ডিপজল। 

তবে ডিপজলের পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার ব্যাপারটি এখনো জানেন না শিল্পী সমিতির সহসাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক।  তিনি বলেন, ‘ডিপজল ভাই প্রযোজক সমিতির নির্বাচন করবেন। মনোনয়নও জমা দিয়েছেন। কিন্তু সেখানে নির্বাচন করলে তো গঠনতন্ত্র মোতাবেক শিল্পী সমিতির পদে থাকতে পারবেন না। আগেই পদত্যাগ করতে হবে। শুনেছি তিনি পদত্যাগ করবেন। কিন্তু এখনো সে ব্যাপারে কোনো আলোচনা বা কোনো আবেদন আমাদের কাছে আসেনি।’