যুদ্ধের গল্পকার কাতসুমোতো সাওতোমে গত মঙ্গলবার (১৭ মে) ৯০ বছর বয়সে মারা গেছেন। তিনি অর্ধশতাব্দীরও বেশি সময় কাটিয়েছেন ১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে বোমা হামলা থেকে বেঁচে যাওয়াদের গল্প সংগ্রহ করতে। তাদের স্মৃতি নিয়ে তিনি ছয়টি বই সংকলন করেছিলেন। তিনি সরকারি সহায়তা ছাড়াই একটি স্মৃতি জাদুঘর প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।
কাতসুমোতো সাওতোমের জন্ম ১৯৩২ সালের ২৬ মার্চ টোকিওতে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তার বয়স মাত্র ১২। ১৯৪৫ সালের ১০ মার্চ রাজধানীতে মার্কিন যুদ্ধবিমান বি-২৯ নাপাম বোমা হামলা শুরু করলে তিনি সেখান থেকে পালিয়ে যান। তবে সেই দুঃসহ স্মৃতি তার পিছু ছাড়েনি। সেই তাড়না থেকেই তিনি ওই পালিয়ে বাঁচা মানুষদের স্মৃতি হাতড়ে বেড়িয়েছেন। টোকিওর বোমা হামলায় লক্ষাধিক মানুষ নিহত হন।
যুদ্ধে বেঁচে যাওয়াদের নিয়ে তার প্রথম সংকলন প্রকাশিত হয় ১৯৭১ সালে। বইটির সাড়ে পাঁচ লাখ কপি বিক্রি হয়েছিল। পূর্ব টোকিওতে তিনি যে স্মৃতি জাদুঘরটি গড়ে তোলেন, সেটি সম্পূর্ণভাবে স্বেছাসেবীদের দ্বারা পরিচালিত। ওই জাদুঘরটি কখনও কোনো সরকারি সহযোগিতা পায়নি।
কাতসুমোতো বরাবরই জাপান সরকারের সমালোচনা করে এসেছেন তাদের মার্কিন ঘেঁষা অবস্থানের কারণে। মার্কিন বিমানবাহিনীর জেনারেল কার্টিস লেমেকে সম্মাননা দেওয়ায় তিনি বলেছিলেন যে, এই সরকারকে তিনি কখনোই ক্ষমা করবেন না।