ছেড়ে আসার সমগ্র গল্পটাই যেন জীবন। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে কত সম্পর্ক-সম্পদ, কত না জমানো সঞ্চয় আমরা ছেড়ে চলে যাই! যেতে হয়।
মানুষকে প্রতিনিয়ত পরিবর্তনের নিয়মে কিংবা বাধ্য হয়ে কিছু না কিছু পেছনে ফেলে আসতে হয়। ফেলে আসা সময় তবু হাতছানি দিয়ে ডাকে; ছেড়ে আসা যক্ষের ধন মনের মধ্যে তৈরি করে ক্ষত।
দেশ-দেশান্তরে ইতিহাসের পর্বে পর্বে ছড়িয়ে থাকে ব্যক্তি, এমনকি সমাজ-জাতিরও ছেড়ে আসা বিচিত্র সম্পদ। ছেড়ে আসার অনুভব বা বিচ্ছেদ যন্ত্রণা বহন করার সামর্থ্য প্রকৃত অর্থে এক ধরনের সংবেদনশীলতা। মানুষের ছেড়ে আসার গল্প তখন আর নিছক গল্প না থেকে হয়ে ওঠে সংবেদনশীলতার বিন্দু বিন্দু অন্তর্ক্ষরণ।

সূচিপত্র
জন্মদিন
নির্মলেন্দু গুণের কবিতা
তিন কবির বিশ্নেষণ
নাসির আহমেদ
তুষার কবির
আফরোজা সোমা -৪-৬
প্রদর্শনী
পচিত্রে রবীন্দ্রনাথ
নাহিদ জাহান নাবিলা -৭
প্রচ্ছদ
ত্যাগ ও সংকল্পের চড়াই উতরাই
যতীন সরকার -৮-১০

না বুঝে কারে তুমি ভাসালে আঁখিজলে
মালেকা পারভীন -১১-১৩

গোলাপ ফোবিয়া
স্বরলিপি -১৪-১৫
পদাবলি -১৬-১৭
খালেদ হোসাইন
রেজাউদ্দিন স্টালিন
রাহমান ওয়াহিদ
পারভেজ আহসান
বেলাল আহমেদ
আদিত্য আনাম
মমতাজ রোজ কলি

গল্প
পিতৃত্ববিষয়ক
আমির হোসেন -১৮-২১
আগুনে চাঁদ ও সময়ের ছিন্নমূল ইলেক্ট্রন
হামিম কামাল -২৪-২৭
দূরের সাহিত্য -২২-২৩
বইয়ের ভুবন -২৮-২৯
কুইজ -৩১

বিষয় : কালের খেয়া

মন্তব্য করুন