জার্মানির ফ্যাঙ্কফুর্টে হ্যামটেক্সটাইল, টেকটেক্সটিল ও টেক্সপ্রসেস প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশের ১৭ প্রতিষ্ঠান। এতে সহায়তা দিয়েছে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি)। তিন দিনের এ প্রদর্শনী শুরু হয়েছে সোমবার। প্রদর্শনী থেকে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠানগুলো সন্তোষজনক রপ্তানি আদেশ আশা করছে। সারা বিশ্ব থেকে আন্তর্জাতিক ক্রেতা এবং ব্র্যান্ড প্রতিনিধিরা প্রদর্শনী পরিদর্শন করছেন। তাৎক্ষণিক রপ্তানি আদেশ দিচ্ছেন কোন কোন ক্রেতা। কেউ কেউ রপ্তানি আদেশের বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছেন।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দুই হাজার ৩০০ প্রতিষ্ঠান প্রদর্শনীতে তাদের পণ্য প্রদর্শন করছে। বিশ্বের সর্ববৃহৎ এ ধরনের আয়োজন করেছে জার্মানভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ম্যাসে ফ্র্যাঙ্কফুর্ট। প্রতি বছর এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। অতিমারি করোনার কারণে গত দুই বছর প্রদর্শনীর আয়োজন করা যায়নি।

ম্যাসি ফ্র্যাঙ্কফুর্টের ঢাকা অফিস সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ থেকে অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- জাবের অ্যান্ড জোবায়ের,নোমানটেরিটাওয়েল, মমটেক্স এক্সপো, কারুপণ্য রংপুর,এসিএস টেক্সটাইল, শাবাব ফ্রেব্রিক্স, আনজির টেরিটাওয়েল, এপেক্স ওয়েভিং অ্যান্ড ফিনিশিং, ডেবোনেইর প্যাডিং অ্যান্ড কোয়ালিটি সলুশন ও নাইচ কম্পোজিট টেক্সটাইলস।