জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমে বাংলাদেশের ৬৪ জেলার মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছে কিশোরগঞ্জ। গত আগস্ট মাসে ০ থেকে ১ বছর মেয়াদি জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমের ভিত্তিতে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয় এ ফল প্রকাশ করেছে। এ ছাড়া ঝালকাঠি দ্বিতীয় ও যশোর তৃতীয় স্থান লাভ করেছে।

শুক্রবার কিশোরগঞ্জের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক (উপসচিব) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী, আগস্ট মাসে ০ থেকে ১ বছর মেয়াদি জন্ম নিবন্ধন সনদের ক্ষেত্রে কিশোরগঞ্জ জেলার টার্গেট ছিল ৫ হাজার ৭৮৫, যেখানে অর্জিত হয়েছে ২২ হাজার ৫৭৪, যা ৩৯০ শতাংশ। অন্যদিকে মৃত্যু সনদের টার্গেট ছিল ১ হাজার ৫২৪, যেখানে অর্জিত হয়েছে ১ হাজার ২১৭, যা ৭৫ শতাংশ। ০ থেকে ১ বছর মেয়াদি জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন গড়ে টার্গেটের ২৩২ শতাংশ অর্জন করেছে কিশোরগঞ্জ জেলা।

সংশ্নিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, কিশোরগঞ্জের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক হিসেবে মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান ২০২১ সালের ১২ এপ্রিল যখন যোগ দেন তখন জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমে কিশোরগঞ্জ জেলার অবস্থান ছিল ৬৪ জেলার মধ্যে ৬৩তম। যোগদানের পর তিনি জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রম বেগবান করতে উদ্যোগী হন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক (উপসচিব) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান জানান, শতভাগ জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন নিশ্চিত করতে কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলমের নির্দেশনায় এ জেলায় অত্যন্ত সফলভাবে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। এ জন্য নিরলসভাবে মোটিভেশনাল কাজ করা হচ্ছে। ফলে তলানির অবস্থান থেকে ক্রমশ উত্তরণ ঘটিয়ে আজ কিশোরগঞ্জ জেলা সারাদেশে শীর্ষস্থান অর্জন করেছে।