পারুলার একটি চাকরি চাই

প্রকাশ: ০৮ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০১৯       প্রিন্ট সংস্করণ     

হরিণাকুণ্ডু (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা

ঝিনাইদহের শারীরিক প্রতিবন্ধী পারুলা খাতুন - সমকাল

প্রচণ্ড ইচ্ছাশক্তি আর অদম্য মনোবলের জোরে শারীরিক প্রতিবন্ধিতাকে জয় করে উচ্চশিক্ষা অর্জন করেছেন ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলার দরিদ্র পরিবারের সন্তান পারুলা খাতুন। সমাজবিজ্ঞানে মাস্টার্স পাস করে পারুলা এবার নেমেছেন নতুন যুদ্ধে। পিতা-মাতা ও ভাই-বোনকে সহায়তা করার জন্য তিনি এখন একটি চাকরির জন্য ঘুরছেন হন্যে হয়ে।

পারুলার আশা, প্রতিবন্ধীদের প্রতি সবসময় দয়ালু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার দিকে সুদৃষ্টি দেবেন। তিনি বলেন, 'আমার কি একটি চাকরি হবে না? কোনো হৃদয়বান ব্যক্তি কি আমার পরিবারের পাশে দাঁড়াবেন না? প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে গেলে নিশ্চয়ই আমার একটি ব্যবস্থা করবেন তিনি। দারিদ্র্যের অভিশাপ থেকে মুক্তি পাবে আমার পরিবার।'

পারুলার বাড়ি হরিণাকুণ্ডুর তাহেরহুদা গ্রামে। তার বাবা মতিয়ার রহমান বলেন, 'আমরা গরিব মানুষ, টাকা-পয়সা দিয়ে চাকরি নেওয়ার ক্ষমতা আমাদের নেই। তাই মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি চাই আমরা।' শিক্ষা জীবনে ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিন্টুর পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েছেন পারুলা। মেয়র মিন্টু বলেন, 'পারুলা অত্যন্ত মেধাবী। সকল প্রতিবন্ধকতা জয় করে সে সর্বোচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করেছে। তার একটি চাকরির প্রয়োজনে আমিও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে যোগাযোগ করেছি। আমার বিশ্বাস, বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর নজরে এলে একটি চাকরি পাবে পারুলা।'

পারুলা ৯ মাস বয়সে পোলিও রোগে চলার শক্তি হারিয়ে ফেলেন। তা সত্ত্বেও কখনও মায়ের কোলে চড়ে কখনও সহপাঠীদের সহযোগিতায় স্কুল ও কলেজে গেছেন। সম্প্রতি কুষ্টিয়া সরকারি কলেজ থেকে সমাজবিজ্ঞানে দ্বিতীয় শ্রেণিতে মাস্টার্স পাস করেন তিনি।