খুলনায় সংবাদ সম্মেলন

বন্ধ ২৫টি পাটকল দ্রুত চালু ও বকেয়া পরিশোধের দাবি

প্রকাশ: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   

খুলনা ব্যুরো

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাষ্ট্রায়ত্ত ২৫টি পাটকল অবিলম্বে চালু এবং শ্রমিকদের পাওনা এককালীন পরিশোধের দাবি জানিয়েছে শ্রমিক-কৃষক-ছাত্র-জনতা ঐক্য পরিষদ নামের একটি সংগঠন। শনিবার বেলা ১১টায় খুলনা প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। এ সময় একই দাবিতে আগামী ২ অক্টোবর বিকেল ৪টায় নগরী খালিশপুর ক্রিসেন্ট গেট চত্বরে শ্রমিক মহাসমাবেশের কর্মসূচী ঘোষণা করে সংগঠনটি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের সমন্বয়কারী রুহুল আমিন। তিনি বলেন, মানুষ যখন করোনা ভাইরাসের ভয়ে আতংকিত, কর্মসংস্থান হারিয়ে লাখ লাখ কর্মক্ষম মানুষ ঘরে বসে অসহায়ত্বের জীবন যাপন করছে, ঠিক তখনই ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সরকার একযোগে বন্ধ করে দিয়েছে। যা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক, অগণতান্ত্রিক ও শ্রমিক স্বার্থবিরোধী। সরকার কোনো আলোচনা ছাড়াই একতরফাভাবে এক নোটিশে ৫৭ হাজার ১৯১ শ্রমিককে বেকার করে দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, সময়মত পাট কেনার জন্য অর্থ ছাড় না দেওয়া, পরবর্তীতে বাড়তি দামে পাট কেনা, পাটকলে আধুনিক যন্ত্রপাতির অভাব, বিপনণ ও প্রশাসনে দক্ষ কর্মকর্তাদের নিয়োগ না দেওয়া, রাজনৈতিক বিবেচনায় এজেন্সি নিয়োগসহ নানাবিদ কারণে পাটকলগুলো আজ লোকসানী প্রতিষ্ঠান। আর এ অবস্থার জন্য শ্রমিকরা কোনোভাবেই দায়ী নয়।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, পাটকল বন্ধের সময় ঘোষণা করা হয়েছিল যে, আগামী তিন দিনের মধ্যে প্রত্যেক শ্রমিকের হিসাব মিল গেটে টানিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু তিন মাস হলেও তা করা হয়নি। সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে শ্রমিকদের সব বকেয়া পাওনা পরিশোধ করার কথা রয়েছে। তবে মাসের ২৬ তারিখ অতিবাহিত হলেও তার কোনো লক্ষণ নেই।