করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-উপদেষ্টা ও বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সাইদুর রহমান।

বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫ টার পর রাজধানীর ইবনে সিনা হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টরত অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। কয়েকজন শিক্ষক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তার মৃত্যুতে ক্যাম্পাস জুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

জানা যায়, গত ২৩ জানুয়ারি থেকে অধ্যাপক সাইদুর অসুস্থ ছিলেন।পরে করোনা পজিটিভ আসলে ২৭ জানুয়ারি কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। অবস্থার অবনতি হতে থাকলে পহেলা ফেব্রুয়ারি ঢাকার স্পেশালাইজড হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। তখন তার ফুসফুস ৭৫ শতাংশ বিকল হয়ে যায়।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি স্পেশালাইজড হাসপাতালে তিন ঘন্টার বিদ্যুত বিভ্রাট হওয়ায় তাকে ইবনে সিনা হাসপাতালের কল্যাণপুর শাখায় ভর্তি করানো হয়। সেখানে তাকে ইনজেকশন দিয়ে ঘুম পাড়িয়ে রাখা হয়েছিল। তার ফুসফুস ৯৮ শতাংশ বিকল হয়ে পড়ে। পরে বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫ টার পর তিনি ইবনে সিনা হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

তার প্রথম জানাযা নামাজ শৈলকূপা উপজেলায় শ্বশুর বাড়িতে বেলা দুইটায় অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ক্যাম্পাস হয়ে বেলা তিনটায় কুষ্টিয়া শহরে তার দ্বিতীয় জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। নিজ বাসস্থান মেহেরপুরে দাফন করা হবে তাকে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কাজে তার অবদান ছিলো উল্লেখযোগ্য। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত ‘বিশ্ববিদ্যালয় বার্তা’, বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকাশনী, শাপলা ফোরামের প্রকাশনীসহ বিভিন্ন প্রকাশনার সম্পাদক ছিলেন তিনি।

অধ্যাপক সাইদুরের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আবদুস সালাম এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে শোক জানিয়েছেন। এছাড়া শিক্ষক সমিতি, শাপলা ফোরাম, বঙ্গবন্ধু পরিষদের দুই অংশসহ বিভিন্ন ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শোক প্রকাশ করেছেন।



মন্তব্য করুন