করোনামুক্ত হয়ে কাজে ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি ডিভিশনের ২০ পুলিশ সদস্য

প্রকাশ: ২১ মে ২০২০     আপডেট: ২১ মে ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

করোনাজয়ী পুলিশ সদস্যদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়- সংগৃহীত

করোনাজয়ী পুলিশ সদস্যদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়- সংগৃহীত

দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ঢাকা মহানগর পুলিশের ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি ডিভিশনের ২০ জন সদস্য সুস্থ হয়ে আবার কাজে যোগদান করেছেন।

বৃহস্পতিবার করোনামুক্ত হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়ে তারা নিজ কর্মস্থল ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি ডিভিশনে এসে যোগদান করেন।

ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি ডিভিশনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাজন কুমার সাহা সমকালকে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

করোনাজয়ীদের কর্মস্থলে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে বরণ করে নেন ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি ডিভিশনের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. আশরাফুল ইসলাম। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি ডিভিশনের এডিসি মুহিত কবির সেরনিয়াবাত, এসি রাজন কুমার সাহা ও পুলিশ লাইন্সের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

সূত্র জানিয়েছে, এইসব পুলিশ সদস্যের সবাই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে ২১ এপ্রিল থেকে ২ মে এর মধ্যে অসুস্ততা নিয়ে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি হন। কভিড-১৯  পরিক্ষার পর তাদের পরিক্ষার ফলাফল  পজেটিভ আসলে তাদেরকে কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা দেওয়ার পর  আবার পর পর দুইবার কভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়। দুইবারই ফলাফল নেগেটিভ আসায় তাদেরকে কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়।

করোনাজয়ী পুলিশ সদস্যদের সম্পর্কে বলতে গিয়ে ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি ডিভিশনের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরাসরি তদারকিতে আমাদের পুলিশ প্রধান মাননীয় আইজিপি মো. বেনজির আহমেদ ও মাননীয় কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম স্যার সহ পুলিশের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ দিনরাত পরিশ্রম করে গেছেন এইসব ফোর্সদেরকে সুস্থ ভাবে ফিরিয়ে আনার জন্য।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার এক সাথে পুলিশের ২০ সদস্য সুস্থ হয়ে ফিরে আসলেন। এই নিয়ে ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি জোনের মোট ২৭ জন সদস্য করোনা পজেটিভ থেকে নেগেটিভ হয়ে সুস্থভাবে আবার কর্মস্থলে ফিরে আসলেন। বাকিরা খুব শিগগরিই সুস্থ হয়ে কর্মস্থলে  যোগদানের অপেক্ষায় রয়েছেন।

ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি জোনের করোনা প্রতিরোধ কমিটির ফোকাল পয়েন্ট এসি রাজন কুমার সাহা বলেন, ২০ সদস্য ফিরে এসে কাজে যোগদান করেছেন। আমাদের অন্য সদস্যদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমরা সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছি। এজন্য বিভিন্ন পদক্ষেপও নেওয়া হয়েছে। করোনার প্রতিরোধে তাদের পাশে রয়েছি।