মানবাধিকার সংগঠনের নামের শেষে ‘কমিশন’ শব্দ ব্যবহারে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশ: ১৫ জুলাই ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন নামে বেসরকারি একটি সংগঠনের নাম থেকে ‘কমিশন’ শব্দটি ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। আইনজীবীরা জানিয়েছেন, এই আদেশের ফলে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান জাতীয় মানবাধিকার কমিশন ছাড়া কোনো বেসরকারি সংস্থা তাদের নামের শেষে ‘কমিশন’ শব্দ ব্যবহার করতে পারবে না। 

আপিল বিভাগের চেম্বার (ভার্চুয়াল) বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান ননী মঙ্গলবার এই আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দিন ও বাকির উদ্দিন ভূঁইয়া। অপরদিকে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. অজিউল্লাহ।

এর আগে গত ২১ জুন বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্টের ভার্চুয়াল বেঞ্চ বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন নামে কথিত একটি সংগঠনের নাম থেকে ‘কমিশন’ শব্দটি সর্বত্র ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেন।

রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক এবং আইন বিরোধী হওয়ায় বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন তার নামের শেষে ‘কমিশন’ শব্দটি এবং নামের সংক্ষিপ্ত রূপ হিসেবে ‘বিএইচআরসি’ শব্দটি ওয়েবসাইট, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং প্রিন্ট মিডিয়া কোথাও ব্যবহার করতে পারবে না মর্মে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। আইনজীবী মো. আবু হানিফের জনস্বার্থে দায়ের করা রিট আবেদনের পর এ আদেশ দেন আদালত। পরে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে ওই সংগঠনটি চেম্বার আদালতে আবেদন করেন। সেই আবেদনের ওপর শুনানি শেষে চেম্বার আদালত হাইকোর্টের আদেশ বহাল রাখেন। 

উল্লেখ্য, কথিত বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনসহ কোনো কোনো বেসরকারি সংগঠন তাদের সংস্থার নামের সাথে ‘কমিশন’ শব্দটি ব্যবহার করে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা, গণমধ্যমসহ জনমনে তার সংস্থাকে রাষ্ট্রীয় সংস্থা মর্মে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। এই মর্মে চলতি বছর গত ১১ মার্চ জাতীয় মানবাধিকার কমিশন গণমাধ্যমে সতর্কতামূলক বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে।