সেনাবাহিনীর সাবেক মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশের মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকি কারনের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া দুর্নীতি মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) আদালতে জমা দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার দুদকের আইনজীবী মাহমুদুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সোমবার আদালতে অভিযোগপত্র জমা হয়েছে। তবে অভিযোগ শুনানির তারিখ এখনও নির্ধারিত হয়নি।

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন এই দম্পতির বিরুদ্ধে গত বছরের ২৩ আগস্ট মামলা করেছিলেন।

দুদক সূত্র জানায়, একই কর্মকর্তা মামলাটি তদন্ত করে কমিশনে প্রতিবেদন পেশ করেন। পরে কমিশন প্রতিবেদনটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে গত ২৫ মার্চ চার্জশিটের অনুমোদন দেয়।

জানা গেছে, চার্জশিটে এই দম্পতির বিরুদ্ধে ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে। দুর্নীতির টাকায় অর্জিত সব সম্পদ ওসি প্রদীপ তার স্ত্রীর নামে রেখেছেন।

দুদকে জমা দেওয়া সম্পদ বিবরণীতে তারা ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন। তদন্তে দেখা গেছে, তারা ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে আইন-২০০৪ এর ২৬ (২), ২৭ (১) ধারা ও মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন-২০১২ এর ৪ (২) ধারা লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজারের টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর তল্লাশি চৌকিতে গুলিতে নিহত হয় সেনাবাহিনীর সাবেক মেজর সিনহা রাশেদ।