ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

দেওয়ালে সাজানো পেইন্টিংয়ের যত্ন

দেওয়ালে সাজানো পেইন্টিংয়ের যত্ন

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ০৪:৫৩ | আপডেট: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ০৪:৫৩

ঘর সাজাতে অনেকেই পেইন্টিং ব্যবহার করেন। ঝকঝকে দেওয়ালে পেইন্টিং লাগালে ঘরের সৌন্দর্য অনেকটাই বেড়ে যায়। ড্রইং রুম, বেড রুমের পাশাপাশি সিঁড়ি দিয়ে ওঠার ধাপে ধাপে দেওয়ালে টাঙানো পেইন্টিংও দেখতে খুব ভালো লাগে। তবে দাম দিয়ে কিনে দেওয়ালে সাজালেই দায়িত্ব শেষ হয় না, যত্ন নেওয়ারও প্রয়োজন হয়। কিছু দরকারি বিষয় মেনে চললে পেইন্টিংস অনেকদিন পর্যন্ত ভালো রাখা যায়।

বড় এবং ভারী পেইন্টিংস ফ্রেমের উপরের দিকে ধরে তুলবেন না, এতে ছবির ভারে নীচের ফ্রেমে চিড় ধরতে পারে, বরং ছবি নীচের দিকে হাতের উপর সাপোর্ট দিয়ে ধরুন।

ক্যানভাসে আঁকা ছবি যেটায় কাঁচের আবরণ নেই, সেগুলো ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করবেন না। এতে ছবির ওপরের অংশে ক্ষতি হয়। নরম কাপড় বা এক টুকরো ভেলভেটের কাপড় দিয়ে আলতোভাবে ছবি মুছে রাখুন। ফ্রেম এবং ছবির পিছন দিক পরিষ্কার করার জন্য ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের নরম ব্রাশ ব্যবহার করতে পারেন। এতে পেইন্টিং পরিষ্কার হবে এবং ভালো থাকবে। পেন্সিল ড্রয়িং, প্যাস্টেল এবং ওয়াটার কালারের ছবিতে কাচ লাগিয়ে নিন। কারণ এই ধরনের ছবি খুব সহজেই ময়লা হয়ে যায়। কাচের আবরণ থাকলে ছবি অনেকদিন ভালো থাকবে।

বাথরুম সংলগ্ন দেওয়াল বা বাইরের দিকের দেওয়াল যেখানে ড্যাম্প ধরার সম্ভাবনা বেশি সেখানে ছবি লাগাবেন না। কারণ অতিরিক্ত ময়শ্চার ছবির ক্ষতি করে। রান্নাঘরের লাগোয়া দেওয়ালেও ছবি টাঙানো উচিত নয়, কারণ রান্নার ধোঁয়া, তেল, কালি পেন্টিংয়ে গায়ে জমে ছবির ক্ষতি হয়। আবার সরাসরি রোদ এসে পড়ছে এমন জায়গাতেও ছবি রাখবেন না। এতে পেইন্টিং তাড়াতাড়ি ফিকে হয়ে যায়। একইভাবে ছবিকে হাইলাইট করার জন্য ছবির উপর খুব বেশি পাওয়ারের লাইট লাগানো উচিত নয়।

বছরে অন্তত দু’বার ছবিগুলো দেওয়াল থেকে খুলে দেখে নিন ছবিতে চিড় ধরা বা কুঁচকে যাওয়ার মতো কিছু হয়েছে কি না। যদি ছবিতে ছোট-ছোট বাবল তৈরি হয়েছে বা ঢেউ খেলানো ভাব এসেছে দেখতে পান তা হলে দেরি না করে পেইন্টিং নিয়ে কাজ করে তাদের সাহায্য নিন। নিজে নিজে ঠিক করতে যাবেন না।

বড় এবং ভারী ছবি টাঙানোর সময় খেয়াল রাখুন দেওয়ালে যেন অন্তত দুটি হুক থাকে। এতে পেইন্টিং ভালোমতো সাপোর্ট পাবে। পাশাপাশি দেখে নিন ছবি এবং দেওয়ালের মাঝে যেন বায়ু চলাচলের জন্য সামান্য দুরত্ব থাকে। এর জন্য ছবির পিছনে ছোট-ছোট কর্ক লাগিয়ে নিতে পারেন।

অয়েল পেন্টিং লাগানোর আগে ছবির উপর ভার্নিশের লেয়ার লাগিয়ে নিলে ছবি অনেকদিন ভালো থাকে। তবে কোনও বিশেষজ্ঞের কাছ থেকেই এটা করানো উচিত।

বর্ষাকালে ছবিতে প্রায়ই ফাংগাস জন্মায়। এক্ষেত্রে প্রফেশনালের কাছ থেকে ছবি পরিষ্কার করিয়ে নেওয়া উচিত। ছবি লাগানোর পর ছবির গায়ে বার-বার হাত দিয়ে দেখবেন না। আমাদের ত্বকেও তেল থাকে, যার ফলে ছবিতে স্পট অথবা ময়লা লেগে যেতে পারে।


আরও পড়ুন

×