শীতের পোশাকের চাই বাড়তি যত্ন

প্রকাশ: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯     আপডেট: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯   

অনলাইন ডেস্ক

শীতের পোশাক

শীতের পোশাক

ষড়ঋতুর দেশ বাংলাদেশ। গ্রীষ্ম, বর্ষা, শরৎ, হেমন্ত, শীত ও বসন্ত। শীত হলো এই ছয়টির মধ্যে অন্যতম একটি ঋতু। পৌষ এবং মাঘ এই দুই মাসকে বলে শীতকাল। এরই মধ্যে প্রকৃতি পরিবর্তন হচ্ছে। অগ্রহায়ণ মাসে অনেক জায়গায় শীত পড়তে শুরু করেছে। শীতকে মোকাবেলা করতে কুয়াশাচ্ছন্ন স্নিগ্ধ সকালের শুরুতে চাই শীতের পোশাক। 

শীতের পোশাক শুধু শীতের সময় অল্প কিছুদিন পরা হয়। এ জন্য প্রতি বছর এই পোশাক কেনা হয় না। শীতের শুরুতে আলমারি থেকে পোশাক বের বাড়তি যত্ন নিলে শীতে আপনি থাকবেন সুস্থ ও সুন্দর।

শীতের সময় আবহাওয়া কিছুটা শুষ্ক থাকায় বাতাসে ধুলাবালি বেড়ে যায়। এ জন্য পোশাকের নিতে হয় বাড়তি যত্ন। 

উল, পশম, ফ্লানেল দিয়ে সাধারণ শীতের পোশাক তৈরি হয়। এসব পোশাক পরার পর খুলে কিছুক্ষণের জন্য বাতাসে মেলে রাখতে হয়।

শীতের পোশাক ডিটারজেন্ট দিয়ে না ধুয়ে শ্যাম্পু দিয়ে ধোয়া উচিত। শ্যাম্পু দিয়ে পোশাক ধুয়ে ফেললে রং ভালো থাকে।

লেদারের পোশাক হলে ঘরে না ধুয়ে লন্ড্রিতে ড্রাই ক্লিন করে নেওয়া ভালো।

কাপড় ঝুলিয়ে শুকাতে না দিয়ে সমতল জায়গায় শুকাতে দিলে কাপড় ভালো থাকে। ঝুলিয়ে শুকাতে দিলে কাপড়ের আকৃতি নষ্ট হয়ে যায়।

মোজা, টুপি ও মাফলার বেশি ময়লা হয়। এগুলো পরিষ্কারের ক্ষেত্রে বিশেষ নজর দিতে হবে।

শীতের পোশাকে পোকা ধরার আশঙ্কা বেশি থাকে তাই পরা শেষে তুলে রাখার সময় ন্যাপথলিন কিংবা অ্যামোনিয়াম ক্লোরাইড দিয়ে রাখলে ভালো কাপড় ভালো থাকে।