করোনা এড়াতে স্যানিটাইজ করবেন গাড়ির যেসব অংশ

প্রকাশ: ২৯ জুলাই ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

করোনার সংক্রমণ এড়াতে অনেকে গণপরিবহন এড়িয়ে চলছেন। এর পরিবর্তে ব্যক্তিগত গাড়ি, কেউ বা দূরে যাতায়তের ক্ষেত্রে ভাড়াগাড়ি ব্যবহার করছেন। এছাড়া অনেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দৈনন্দিন কাজকর্ম করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু কোনোভাবেই কমছে না সংক্রমণের তীব্রতা। এরকম পরিস্থিতিতে, সংক্রমণ এড়াতে আমাদের সবরকমভাবে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। প্রতিটি ছোট ছোট জিনিস পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার দিকে খেয়াল রাখা অত্যন্ত জরুরি।

যারা নিজস্ব গাড়ি ব্যবহার করেন তারা হয়তো গাড়ি নিয়মিতভাবে ভালোভাবে ধোওয়া মোছা করেন। তবে গাড়ির এমন কয়েকটি অংশ আছে যেদিকে মনোযোগ না দেওয়ার ফলেও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হতে পারে। যেমন -

স্টিয়ারিং হুইল এবং গিয়ার:  গাড়ির কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ আছে, যেগুলি বারবার স্পর্শ করা হয়। সেগুলি হল স্টিয়ারিং হুইল এবং গিয়ার লিভার। এগুলি নিয়মিত স্যানিটাইজ করা দরকার। পুরো স্টিয়ারিং হুইল ভালো করে পরিষ্কার করা উচিত। সংক্রমণ এড়াতে লিভার এবং গিয়ার উপর থেকে নীচে পর্যন্ত ভালো করে নিয়মিত মুছতে হবে।

দরজা : গাড়ির যে অংশটি সব থেকে বেশি স্পর্শ করা হয়, সেটা হল দরজা। কারণ প্রতিবারই গাড়ির ভিতরে ঢোকা এবং বাইরে বের হবার সময় এটি স্পর্শ করতেই হয়। এ কারণে দরজার হাতলটি ভিতরে এবং বাইরে উভয়দিকেই ভালোভাবে স্যানিটাইজ করা উচিত।

ড্যাশবোর্ড : যখন ওয়াইপার চালু করা হয় তখন ড্যাশবোর্ডের সুইচ স্পর্শ করা হয়। এছাড়াও প্রায়ই লাইট বা এয়ারকন্ডিশন চালানোর জন্য স্যুইচ ব্যবহার করা হয়। সুতরাং এই সবকিছু স্যানিটাইজ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু ড্যাশবোর্ড বেশিরভাগ প্লাস্টিকের তৈরি হয় এবং ভাইরাস অন্যান্য পৃষ্ঠের তুলনায় প্লাস্টিকের উপরে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয় এ কারণে এটা পরিষ্কারের ব্যাপারে আরো গুরুত্ব দেওয়া উচিত।

টাচস্ক্রিন এবং রেডিও সিস্টেম টাচস্ক্রিন :  করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে কোনও কিছু স্পর্শ করার পর পরই সেটি স্যানিটাইজ করা উচিত। গাড়িতে টাচস্ক্রিন থাকলে সেটাও মুছতে হবে। যদি টাচস্ক্রিন না থাকে কিন্তু সাধারণ রেডিও সিস্টেম থাকে তাহলে সেটাও অবশ্যই পরিষ্কার করতে হবে।

সিট : নিজের সুরক্ষার জন্য গাড়ির সিটগুলি নিয়মিত স্যানিটাইজ করা উচিত। যদি অন্য কারো সঙ্গে যাত্রা করেন তাহলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বসুন। গাড়ির প্রত্যেকটি সিট ভালোভাবে পরিষ্কার করুন।