শরীরে  ঠিকমতো লোহিত রক্তকণিকা তৈরি না হলে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। বিভিন্ন কারণে লোহিত রক্তকণিকা কমে যেতে পারে। তখন শরীর ক্লান্ত লাগে, দুর্বলতা দেখা দেয়। ফলে শরীরে রক্তশূন্যতা তৈরি হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, বাড়িতে শুধুমাত্র ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া করলেই লোহিত রক্তকণিকা বেড়ে যেতে পারে। যে পাঁচটি উপাদান লোহিত রক্তকণিকা বাড়াতে সাহায্য করবে সেগুলি হল আয়রন, ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন বি-১২, কপার এবং ভিটামিন-এ। যেসব খাবার শরীরে লোহিত রক্তকণিকা তৈরিতে ভূমিকা রাখে-

আয়রন সমৃদ্ধ খাবার : শরীরে লোহিত রক্ত কণিকা তৈরির জন্য আয়রন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া প্রয়োজন। লোহিত রক্তকণিকা তৈরিতে লাল মাংস, কলিজা, সবুজ শাকসবজি যেমন - পালং শাক, ড্রায়েড ফ্রুটস -যেমন কিসমিস, বিনস, ডিমের কুসুম, ইত্যাদি খেতে পারেন। এগুলো প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখলে শরীরে রক্ত বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে।

ফলিক অ্যাসিড :  ফলিক অ্যাসিড লোহিত রক্ত কণিকা উৎপন্ন করতে সাহায্য করে। যেসব খাবারে ফলিক অ্যাসিড পাওয়া যায় সেগুলি হল - খাদ্যশস্য, সবুজ শাকসবজি, শিম, মটরশুঁটি, বাদাম।

ভিটামিন বি-১২ : ভিটামিন বি-১২ সমৃদ্ধ খাবার লোহিত রক্ত কণিকা উৎপন্ন করতে সাহায্য করে। মাছ, খাসি বা গরুর মাংস, ডিম, দুগ্ধ জাতীয় খাবারে এই ভিটামিন পাওয়া যায়।

কপার : কপারযুক্ত খাবার খেলে লোহিত রক্ত কণিকা তৈরি হয় না। তবে কপার আয়রন সংগ্রহে লোহিত রক্ত কণিকাকে সাহায্য করে। ডিম, লিভার, শিম, চেরি, বাদামে প্রচুর কপার পাওয়া যায়।

ভিটামিন এ : ভিটামিন এ লোহিত রক্ত কণিকা তৈরি করতে সাহায্য করে। ভিটামিন-এ সমৃদ্ধ খাবার হল - সবুজ শাকসবজি, মিষ্টি আলু, গাজর, তরমুজ, আঙুরের মতো রসালো ফল।

এছাড়া বেশ কিছু সাপ্লিমেন্টও লোহিত রক্ত কণিকা বাড়াতে সাহায্য করে। তবে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী এসব সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করা উচিত।