মহামারির পর থেকে বিশ্বের প্রতিটি মানুষ নানারকম চিন্তা-ভাবনা, উত্তেজনা, উদ্বেগে ভূগছেন। অনেকেই আবার এই চিন্তার বোঝা না বইতে পেরে নানাভাবে মানসিক অবসাদের শিকার হচ্ছেন। গবেষকরা বলছেন, মহামারি কবে শেষ হবে তা কারোরই জানা নেই। এ কারণে নিজেকে সুস্থ রাখার চেষ্টা করা উচিত।

অনেকেই শরীর সুস্থ রাখতে নিয়মিত ব্যায়াম করেন। তবে এর পাশাপাশি মেডিটেশন বা ধ্যান করলে মনও সুস্থ থাকবে।

ধারণা করা হয়, যারা নিয়মিত মেডিটেশন নিয়ে চর্চা করেন তারা নিজেদেরকে আরো ভালো বুঝতে পারেন। তারা স্বভাবের দিক দিয়ে অনেক শান্ত ও ধীর-স্থিরও হন। মনের মধ্যে কোনো বিষয় নিয়ে চিন্তার উদ্ভব হলে মন অকারণেই উত্তেজিত হয়ে ওঠে। আবার হৃদস্পন্দনের হারও বেড়ে যায়। এটা শরীরের জন্য মোটেও ভালো নয়। তাই রাগের উপর বা নিজের আবেগের উপর নিয়ন্ত্রণ পেতে মেডিটেশন অভ্যাস করা উচিত ছোট থেকে বড়ো প্রত্যেককে।

মনের শান্তির জন্যে যে মেডিটেশন করা হয় তা কিছু পদ্ধতির মধ্যে দিয়ে কাজ করে থাকে। এগুলো হলো একাগ্রতা, স্বাস্থ্য সচেতনতা, আবেগ নিয়ন্ত্রণ এবং নিজের সম্পর্কে ধারণায় বদল ঘটে। যখন এই সব পদ্ধতি একসঙ্গে কাজ করে তখন নিজেদের সম্পর্কে ধারণা বদলে যায়। নিয়মিত মেডিটেশন করলে চিন্তাশক্তি, আচার-আচরণ, একাগ্রতা সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

মন্তব্য করুন