সন্তানের অসুখে চিন্তায় পড়ে যান ২৫ বছর বয়সী বীথি। কোনো রকম রাতটা কাটিয়ে ভোরের আলো ফুটতেই মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার রমজানবেগ খাসকান্দি এলাকা থেকে নদী পার হয়ে যান নারায়ণগঞ্জ। সেখানেই এক হাসপাতালে ১ বছর বয়সী কন্যা আরিফাকে চিকিৎসক দেখিয়ে, ওষুধ কিনে তবেই স্বস্তি পান তিনি। লঞ্চে চেপে বাড়ি ফিরছিলেন। কিন্তু গত মাসের শুরুতে শীতলক্ষ্যা নদীর কয়লাঘাট এলাকায় একটি জাহাজ পেছন থেকে ধাক্কা দিয়ে তাদের লঞ্চটি ডুবিয়ে দেয়। নিশ্চিত মৃত্যু জেনেও বক্ষের ধনকে ছেড়ে দেননি বীথি; আঁকড়ে রেখেছিলেন। মৃত্যু ছিন্ন করতে পারেনি মায়ার এ বন্ধনকে। মায়ের মতো পৃথিবীতে আপন আর কেউ নেই। শত দুঃখ-কষ্ট-বিপদেও মা সন্তানকে ছেড়ে যান না। বুক আগলে সব ঝড়ঝাপ্টা থেকে বাঁচিয়ে রাখেন। হাজার যন্ত্রণার ভিড়েও সন্তানের অমঙ্গল চান না মা। পৃথিবীতে সব মায়ের একই রূপ।

যুগে যুগে কবি-সাহিত্যিকরা তুলে ধরেছেন মায়ের ভালোবাসার এই শ্বাশত রূপ। বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম মায়ের চিরায়ত রূপ তুলে ধরে লিখেছেন- 'সর্বসহা সর্বহারা জননী আমার।/ তুমি কোনদিন কারো করনি বিচার,/ কারেও দাওনি দোষ। ব্যথা বারিধির/ কূলে ব'সে কাঁদ' মৌনা কন্যা ধরণীর...'।

মা শাশ্বত, চিরন্তন একটি আশ্রয়ের নাম। অকৃত্রিম স্নেহ-মমতা আর গভীর ভালোবাসার আশ্রয়স্থল মা। ধর্ম-বর্ণ-গোষ্ঠী কিংবা সমাজে মায়ের ভেদাভেদ নেই। মায়ের কোনো বিকল্প হয় না। কারও সঙ্গে তার তুলনা চলে না।

আজ বিশ্ব মা দিবস। তাই পৃথিবীর সব মায়ের প্রতি ভালোবাসা নিবেদনে করোনাকালেও নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হবে 'মা দিবস'। অনেকেই বলেন, সন্তানের কাছে সবচেয়ে আপন, সবচেয়ে প্রিয় তার মা। মাকে ভালোবাসতে আবার দিন লাগে? মা তো মা-ই। তবুও নির্দিষ্ট একটা দিনে পৃথিবীর সব মাকে শুভেচ্ছা জানানোর জন্যই এ দিনটা পালন করা হয়।

প্রতি বছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বাংলাদেশে মা দিবস পালিত হয়। করোনা মহামারির কারণে গত বছর থেকে তেমন কোনো আয়োজন করা না হলেও ঘরোয়াভাবে অনেকেই কেক কেটে মায়ের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এরই মধ্যে মাকে ভালোবাসা জানিয়েছেন বহু মানুষ। ইতোমধ্যে অনেকে প্রোফাইল ছবি কিংবা মাকে জড়িয়ে নানা ছবি ও লেখা দিচ্ছেন ফেসবুক, টুইটারসহ নানা জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যমে। অনেক আবার প্রথম মাতৃত্বের স্বাদ গ্রহণের ক্ষণটি তুলে ধরেছেন।

গৃহিণী হালিমা নাসরীন সমকালকে বলেন, ওটিতে ডাক্তার একটি ফুটফুটে কন্যাশিশুকে আমার গালের সঙ্গে মিশিয়ে বললেন, 'আপনি কি জানেন, আজকে বিশ্ব মা দিবস? মা দিবসে আপনি প্রথম মা হলেন।' তিনি বলেন, 'সন্তানের মুখ দেখার পর মনে হলো, আমার নিজের মা হারানোর অসহ্য কষ্ট, যন্ত্রণা অনেকখানি কমে গেছে। মা যেন নতুন রূপে আবার আমার কাছে ফিরে এসেছে।'

বিশ্বের অনেক দেশে কেক কেটে মা দিবস উদযাপন করা হয়। তবে মা দিবসের প্রবক্তা আনা জার্ভিস দিবসটির বাণিজ্যিকীকরণের বিরোধিতা করে বলেছিলেন, মাকে কার্ড দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর অর্থ হলো, তাকে দুই কলম লেখার সময় হয় না। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ছিলেন। তার মা অ্যান মেরি রিভস জার্ভিস সারা জীবন ব্যয় করেন অনাথ-আতুরের সেবায়। মেরি ১৯০৫ সালে মারা যান। লোকচক্ষুর অগোচরে কাজ করা মেরিকে সম্মান দিতে চাইলেন জার্ভিস। মেরির মতো দেশজুড়ে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা সব মাকে স্বীকৃতি দিতে জার্ভিস প্রচার শুরু করেন। সাত বছরের চেষ্টায় মা দিবস যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পায়।

পৃথিবীর বিভিন্নম্ন দেশে ভিন্ন ভিন্ন তারিখে দিনটি পালন করা হয়। যেমন ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় রোববার নরওয়েতে, মার্চের চতুর্থ রোববার আয়ারল্যান্ড, নাইজেরিয়া ও যুক্তরাজ্যে। আর বাংলাদেশে পালিত হয় মে মাসের দ্বিতীয় রোববার।

ঈদুল ফিতরের দিনকয়েক আগেই মা দিবস হলেও মায়েদের সম্মানে দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো এনেছে নতুন ডিজাইনের শাড়ি। ছাপচিত্র ও স্ট্ক্রিনপ্রিন্টের মাধ্যমে তাঁতের শাড়িতে ফুটিয়ে তুলেছেন কবি-সাহিত্যিকদের বাণী। মায়ের প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা প্রকাশের জন্য ফ্যাশন হাউস 'বিশ্বরঙ' সাজিয়েছে শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, আনস্টিচ থ্রি-পিস, ব্যাগ, ব্লাউজ পিস, গহনা, শার্ট, ফতুয়া, টি-শার্ট, পাঞ্জাবি ইত্যাদির বিশাল সম্ভার। মা শিরোনামে ভিন্নম্নধর্মী মগও পাওয়া যাচ্ছে এখানে। এ ছাড়া অনলাইন ফ্যাশন পেজ 'কইন্যা' ও 'পানপাতার বসন' মা দিবস উপলক্ষে এনেছে শাড়ি।

মন্তব্য করুন