বর্ষাকালে স্যাতস্যাতে পরিবেশে সবকিছুই ভেজা ভেজা থাকে। তার ওপরে বৃষ্টি থামলে পড়ে অস্বস্তিকর গরম। গরমের কারণে আমাদের শরীরে ঘাম হয়। মাথার সাথে চুল ঘামায় ফলে চুলের গোড়ায় বিভিন্ন ধরনের ফাঙ্গাস ইনফেকশন হতে পারে, যার জন্য চুল পড়ে। এর ফলে আবার খুশকি হলেও স্কাল্পে চুলকানি হয় এবং ভেজা ভাব চুলকে ভঙ্গুর করে হেয়ার ফল হয়। জেনেটিকভাবে, হরমোনজনিত সমস্যা, বিভিন্ন হেয়ার কালার, কেমিক্যাল ব্যবহার চুলের ক্ষতি করে। এসব কারণে ও চুল লাবণ্য হারায়, চুল পড়ে।

বিশ্বজুড়ে এখন ছেলে-মেয়ে উভয়ের মাঝেই এই সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এক্ষেত্রে বিশ্বে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে হেয়ার প্লানটেশন। আমাদের দেশে ও এখন শুরু করেছে। কিন্তু এটা বেশ ব্যয়বহুল। বরং এমন কিছু খাবার আছে হেয়ার ফল প্রতিরোধ করে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে, চুলের স্থাস্থ্যকে ভালো রাখে।

এমনই একটি খাবার ডিম। প্রোটিনের ভরপুর ডিম ভিটামিন বি১২, আয়রন, প্রো বায়োটিন, জিংঙ্ক, ওমেগা-৬, ফ্যাটি এসিডের ভালো উৎস। এ ছাড়া বাদাম ড্রাই ফুড, বিজ জাতীয় খাবার, তিল,মেথি, আখরোট, বিভিন্ন ধরনের মাছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি এসিড রয়েছে। বিভিন্ন ধরনের শাকসবজি ও ফলমূল, সালাদ নিয়মিত খাবার অভ্যাস করলে হেয়ার ফল কম হবে। সালাদ, কাঁচা পেঁয়াজ খেলে বা ভাতের সাথে ও কাঁচা পেঁয়াজ খেলে চুলের গোড়া শক্ত ও হেয়ার গ্ৰোথ হবে। এছাড়া ভিটামিন 'এ' সমৃদ্ধ গাজরে আছে ফলিকল, যা চুলকে মজবুত করে। ভিটামিন 'সি' ও 'ই' সমৃদ্ধ খাবার গ্ৰহণন করতে হবে। ভিটামিন 'সি' সমৃদ্ধ লেবু, আমলকী, আঙ্গুর, কাঁচা মরিচ প্র্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখুন। শাকসবজিতে ভিটামিন, মিনারেল ও আন্টিঅক্সিডেন্ট থাকে, যা চুলের গোড়া শক্ত করে, চুল লম্বা করে। এছাড়া জাফরানও খুব উপকারী চুলের জন্য।

পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ যেমন দরকার তেমনি দরকার যত্ন। সপ্তাহে অন্তত একবার বা দুইবার যে কোন ন্যাচারাল প্যাক, প্রোটিন জাতীয় প্যাক, টকদই, মধু, ডিম মিক্স প্যাক, মেহেদী মেথি শিকাগাই মিক্স প্যাক, আমলকী, লেবু, আ্যলোভেরা মিক্স প্যাক, গ্ৰিনটি ২টা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। তারপর স্কাল্পে ম্যাসাজ করুন। চুল হবে ঝলমলে স্ট্রেইট। ঘরে বসে তৈরি করুন সব প্যাক, আর মাথায় রাখুন ২০/৩০ মিনিট। মাথায় প্যাক লাগানোর আগে বিভিন্ন অয়েল মিশিয়ে ১০ মিনিট ম্যাসাজ করুন। এতে চুলের গোড়া শক্ত হয়। নারকেল তেল, আমন্ড অয়েল, তিলের তেল, ক্যাস্টার অয়েল খুব ভালো চুল গজাতে সাহায্য করে। মিক্স অয়েল খুব ভালো কাজ করে। এরপর ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে দিন ১৫ মিনিট। এতে চুলের গোড়া শক্ত হয়। স্টিম নিতে পারেন। তারপর প্যাক দিয়ে ৩০/৪০ মিনিট পর যে কোনো মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ বার। অবশেষে বলবো হেয়ার ফল প্রতিরোধ করতে বেইলি মাইল্ড শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।

মাথায় হিজাব বা হেলমেট পরলে ঘাম হয়। এক্ষেত্রে চুল পড়া রোধ করতে হলে একটা সুতির ক্যাপ পরতে হবে। বর্ষাকাল বৃষ্টির পানি বা ময়লা পানি পড়লে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। শ্যাম্পু দিয়েচুল ধুয়ে ভালো মতো শুকিয়ে নিতে হবে। নিয়মিত পান করতে হবে ৭/৮ গ্লাস পানি।পর্যাপ্ত ঘুম না হলেও হেয়ার ফল হতে পারে, তাই ঘুমাতে হবে ৭/৮ ঘণ্টা। দুশ্চিন্তা থেকে মুক্ত থাকুন, স্ট্রেস থেকেও হেয়ার ফল হয়। ঘুম ও খাবারের পাশাপাশি নিয়মিত ইয়োগা এক্সারসাইজ করুন।

বিষয় : হেয়ার ফল চুল পড়া লাইফস্টাইল

মন্তব্য করুন