গোটা বিশ্বে অন্তত ১২ শতাংশ মানুষ থাইরয়েডজনিত সমস্যায় ভোগেন। থাইরয়েডের সমস্যা অত্যন্ত সাধারণ এবং পরিচিত একটি রোগ। বেশির ভাগ সময়ে নারীরা এই সমস্যায় আক্রান্ত হলেও সবারই থাইরয়েড গ্রন্থির সমস্যা হতে পারে।

সহজ ভাষায়, থাইরয়েড গ্রন্থি যেই থাইরয়েড হরমোনের সৃষ্টি করে, তার মাত্রা প্রয়োজনের থেকে বেশি বা কম হওয়াতেই এই সমস্যাগুলি দেখা দেয়। থাইরয়েড হরমোন মূলত বিপাকের ক্ষেত্রে এবং শরীরের বিভিন্ন অংশের গঠনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এই হরমোনের মাত্রা শরীরে অত্যধিক বেশি বা কম হয়ে গেলে তা বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা সৃষ্টি করে।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,শরীরে থাইরয়েডের সমস্যা হলে কয়েকটি লক্ষণ দেখা দেয়। যেমন-

ক্লান্তি : থাইরয়েডের সব থেকে সাধারণ লক্ষণ হচ্ছে ক্লান্তি। থাইরয়েড হরমোন মূলত শরীরে শক্তি জোগান দেয়। যদি সবসময়ই অতিরিক্ত ক্লান্তি অনুভব করেন, তাহলে তা থাইরয়েড হওয়ার লক্ষণ হতে পারে।

ওজন বেড়ে যাওয়া : অতিরিক্ত ওজন বেড়ে যাওয়াও থাইরয়েডের লক্ষণ হতে পারে। শরীরের বিপাকের মাত্রা যদি কমে যায় বা বেড়ে যায়, তাহলে ওজনে বেড়ে যেতে পারে।

অতিরিক্ত ঠান্ডা লাগা : বেশি শীত না পড়লেও যদি খুব সহজেই ঠান্ডা লাগে, তার মানে আপনার শরীর যথেষ্ট পরিমাণে ক্যালরি ঝরাচ্ছে না। বরং আপনার শরীর ক্যালরি সঞ্চয় করে রাখছে। যা থাইরয়েড হওয়ার লক্ষণ হিসেবে ধরা যেতে পারে।

পেশি এবং অস্থিসন্ধির দুর্বলতা  : বিপাকের সমস্যার কারণে পেশির এবং অস্থিসন্ধির শক্তির ক্ষয় হতে পারে। যার ফলে পেশি বা অস্থিসন্ধি দুর্বল হয়ে যেতেই পারে।

চুল পড়া : থাইরয়েডের সমস্যা হলে চুল ঝরা বেড়ে যেতে পারে। চুলের গোড়া দুর্বল হয়ে যাওয়ার জন্য অনেক ক্ষেত্রেই থাইরয়েডজনিত সমস্যা দায়ী।

অবসন্নতা : বিভিন্ন সমীক্ষা অনুযায়ী, বেশির ভাগ মানুষ যারা থাইরয়েডের সমস্যায় ভুগছেন, তাদের মধ্যে অবসাদ দেখা দিতে পারে।

মনোযোগ দিতে না পারা এবং ভুলে যাওয়া
: থাইরয়েডের সমস্যায় ভুগছেন এমন অনেকেই মানসিক ক্লান্তির কথা বলেন। মনোযোগ দিতে না পারা, বা সহজেই কোনো কথা ভুলে যাওয়া, এগুলি থাইরয়েডের ক্ষেত্রে অত্যন্ত পরিচিত লক্ষণ।

পিরিয়ডজনিত সমস্যা : শরীরের অন্যান্য হরমোনের সঙ্গে থাইরয়েড হরমোনের সম্পর্ক থাকায়, সেই হরমোনের বেড়ে যাওয়া বা কমে যাওয়া অন্যান্য হরমোনের কার্যকারিতাকেও প্রভাবিত করতে পারে। পিরিয়ডজড়িত হরমোনের ক্ষেত্রেও এর প্রভাব পড়তে পারে। যার ফলে পিরিয়ডের সময় নানা সমস্যা হতে পারে।