স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, এখনও দেশে কভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তাই দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে পাসপোর্ট যাত্রী ও আমদানি-রপ্তানি কাজে নিয়োজিত ট্রাকচালকদের সুরক্ষার কথা ভেবে স্ক্রিনিং সেন্টার এবং মেডিকেল সেন্টার স্থাপন করা হবে।

শনিবার হিলি স্থলবন্দর পরিদর্শনে এসে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সাইদুর রহমানসহ উচ্চপর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল। স্ক্রিনিং সেন্টার এবং মেডিকেল সেন্টার স্থাপনের জন্য জায়গা নির্ধারণের জন্য সরেজমিন পরিদর্শনে দলটি হিলি আসে।

পরে পানামা পোর্টের হলরুমে বন্দরের সব পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের ওপর সার্ভিল্যান্স কার্যক্রম জোরদার এবং স্বাস্থ্য-সংক্রান্ত স্ক্রিনিং কার্যক্রমবিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

এ সময় সেখানে বক্তব্য দেন দিনাজপুর সিভিল সার্জন আব্দুল কুদ্দুছ, ইউএনও মোহাম্মদ নূর এ আলম, পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত ও ভাইস চেয়ারম্যান শাহীনুর রেজা। 

এর আগে তারা হিলি স্থলবন্দর, ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট ও উপজেলা হাসপাতাল পরিদর্শন করেন।