মহামারির কারণে সব কিছুই এখন ডিজিটাল মাধ্যমের উপর নির্ভরশীল। পড়াশোনা থেকে অফিস, কেনাকাটা সব কিছুই সামলানো যাচ্ছে ফোন কিংবা কম্পিউটারের পর্দায়। ফলে কায়িক শ্রম খানিকটা কম হচ্ছে।

অনেকেই আবার সময়ের অভাবে বাড়িতেও শরীরচর্চা করে উঠতে পারেন না। সব কিছুর ফলে পিঠে ব্যথার সমস্যা বেড়ে যাচ্ছে। সব বয়সের মানুষের মধ্যেই এই সমস্যার পরিমাণ বাড়ছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, পিঠে ব্যথার অন্যতম প্রধান কারণ হচ্ছে এক জায়গায় অনেক ক্ষণ বসে থাকা। তবে এই সমস্যার তাৎক্ষণিক উপশমের কিছু উপায়ও আছে। যেমন-

১. চেষ্টা করুন ঘুমোনোর সময় মাথার নীচে বালিশ না নিতে।

২. নিয়মিত ভুজঙ্গাসন, যোগব্যায়ামসহ নানা ধরনের শরীরচর্চা করলে পিঠের ব্যথা কমে।

৩. অফিসের কাজ করার সময়ে একই জায়গায় এবং একই ভঙ্গিতে অনেক ক্ষণ বসে থাকবেন না। প্রতি ২০ মিনিট পর পর বিরতি নিন। হাঁটাচলা করুন। তা না হলে একটু উঠে দাঁড়ান

৪. খব বেশি ব্যথা হলে ঠান্ডা এবং গরম সেক দিতে পারেন। ত্বকের সুরক্ষার জন্য একটি পাতলা তোয়ালেতে বরফের টুকরা পেঁচিয়ে পিঠে সেক দিন। ব্যথা কমাতে হিট প্যাডও ব্যবহার করতে পারেন।  ঠান্ডা কিংবা গরম সেক পেশি শিথিল করতে সাহায্য করে। এতে ব্যথাও কমে।