ধীরে ধীরে ঠান্ডা বাড়ছে প্রকৃতিতে। আবার কোথাও কোথাও বাড়ছে করোনাও। সাধারণত বছরের এই সময়টাতেই অনেকে বেড়াতে যেতে পছন্দ করেন।  তবে বেড়াতে যাওয়ার ঠিক আগে তাড়াহুড়োয় কী কী সঙ্গে নেবেন তা ঠিক করে মনে পড়ে না। তাই অনেক দরকারি জিনিসই বাদ পড়তে পারে। সেক্ষেত্রে ভ্রমনের আগেই কী কী সঙ্গে নেবেন তার একটা তালিকা তৈরি করতে পারেন। যেমন-

দরকারি কাগজপত্র: কোথাও বেড়াতে যাওয়ার থাকলে, প্রথমেই কোন কোন কাগজ নিতে হবে, সেগুলি গুছিয়ে নিন। ভোটার কার্ড, বিদেশ যেতে হলে পাসপোর্ট-ভিসার কাগজও গুছিয়ে নিতে হবে। এখন আবার সঙ্গে করোনার টিকারও সনদ নেওয়া প্রয়োজন।

ওষুধ
: জ্বর, পেটের সমস্যা, সর্দি, মাথাব্যথার সাধারণ ওষুধ সঙ্গে রাখা উচিত। এর সঙ্গে নিতে পারেন আরও কয়েকটি ওষুধ। শীতে অনেকের ত্বকে ছত্রাকঘটিত সংক্রমণ হয়। তার ওষুধও নিতে পারেন। এ ছাড়াও ব্যথা কমানোর মলম বা স্প্রে সঙ্গে নিতে পারেন।

পোর্টেবল পানীয় জলের ফিল্টার
: বেড়াতে গিয়ে অনেকেকেই পানীয় জলের সমস্যায় পড়তে হয় । পোর্টেবল পানির ফিল্টার সঙ্গে রাখলে এই সমস্যা হবে না। যে কোনও জায়গায় পাওয়া যাবে পানীয় জল।

টয়লেট পেপার
: শীতে সব জায়গায় পানি নাও পেতে পারেন। পানি পেলেও ঠান্ডায় তা ব্যবহার করার ইচ্ছা নাও হতে পারে। তাই সঙ্গে অবশ্যই রাখুন টয়লেট পেপার।

মশা তাড়ানোর স্প্রে
: যেখানে বেড়াতে যাচ্ছেন, সেখানে মশা বা অন্য কীটপতঙ্গের সমস্যা হতে পারে। শীতে এই সমস্যা হবে না— এমন ভাবার কোনও কারণ নেই। তাই মশা বা পোকা তাড়ানোর স্প্রে সঙ্গে নিন।

ফোনের প্যাকেট
: বেড়াতে গিয়ে ফোন রাখার জন্য প্যাকেট ব্যবহার করতে পারেন।

ফ্লাস্ক: বেড়াতে গিয়ে সারাদিন  কেউ ঘরে বসে থাকে না। বাইরে বেরোতেই হয়। এজন্য সঙ্গে ছোট ফ্লাস্ক রাখুন। চাইলে কিছুটা গরম চা’ও রাখতে পারেন।

গরম জামা
: শীতে কোথাও বেড়াতে গেলে সঙ্গে গরম জামা রাখতেই হবে। সোয়েটার, মাফলার, টুপি গুছিয়ে নিন মাথা ঠান্ডা করে। যেখানে যাচ্ছেন সেখানে তাপমাত্রা কেমন থাকবে, আগে থেকে জেনে নিন।

জুতা: বেড়াতে যাওয়া উপলক্ষে আলাদাভাবে জুতা, স্যান্ডেল গুছিয়ে নিন।

হালকা ব্যাগ
: শীতে বেড়াতে গেলে গরম জামার কারণে এমনিতেই ব্যাগের ওজন বেড়ে যায়। তার উপর যদি ব্যাগটিই এমন কোনও উপাদানে তৈরি হয়, যেটি খুব ভারী, তা হলে মালপত্রের ওজন অত্যন্ত বেড়ে যায়। এই সময়ে বেড়াতে গেলে হালকা ব্যাগে সব কিছু নিতে পারেন।