শীতকালে উৎসব লেগেই থাকে। এ সময় একটু বেশি তেল-মসলাযুক্ত খাবার খাওয়া হয়। এছাড়া গুড়ের তৈরি নানা রকমের মিষ্টি, পিঠে-পুলি খাওয়া তো আছেই।  অথচ শীতের সময় আলসেমির কারণে অনেকেই সকালে উঠতে চান না। সেক্ষেত্রে ব্যায়ামের নিয়মে ছেদ পড়ে।  আপাতত ভাবে যতই ঝরঝরে, আনন্দের মনে হোক না কেন এই মৌসুমকে, আদৌ সবটা তেমন নয়। বরং এ সময়ে নানা ধরনের অসুখ হয়। হৃদরোগও বাড়ে।

হৃৎপিণ্ড সুস্থ রাখার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হল জীবনযাপনে কিছু নিয়ম বজায় রাখা। শীতকালে হৃৎপিণ্ড সুস্থ রাখতে যেসব বিষয় মেনে চলা জরুরি-

১. প্রতি দিন শরীরচর্চা করা জরুরি। এ সময়ে যদি বাইরে বেরিয়ে ব্যায়াম করতে ইচ্ছা না হয়, তবে ঘরেই কিছু ক্ষণ শরীরচর্চা করুন।

২.  অতিরিক্ত মেদ হৃৎপিণ্ডের জন্য খারাপ। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় স্বাস্থ্যকর খাবার রাখতে চেষ্টা করুন। যে সব খাবারে খনিজ পদার্থ এবং ফাইবার বেশি, সে সব খাবার বেশি করে খান।

৩. মানসিক চাপ কোনও মৌসুম দেখে হয় না। তবু শীতকালে মানসিক চাপ শরীরের উপর অনেক বেশি প্রভাব ফেলে।

৪. যে কোনও সময়ে স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়ার ক্ষেত্রে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ঘুম। তাতে শারীরিক নানা সমস্যা দূর হয়।

৫. অতিরিক্ত চিনি বা অত্যধিক লবণ, কোনওটিই হৃৎপিণ্ডের জন্য ভালো নয়। তাতে রক্তচাপ বাড়তে পারে। শীতকালে বিশেষ ভাবে এ ধরনের খাবার খাওয়া বন্ধ রাখতে হবে।