শরীর সুস্থ রাখতে পর্যাপ্ত প্রোটিনের প্রয়োজন। এটি রক্তে শর্করার ভারসাম্য ঠিক রাখতে রাখতে সহায়তা করে। শরীরে পর্যাপ্ত প্রোটিনের অভাবে নানারকম শারীরিক জটিলতা দেখা দিতে পারে। শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি হলে কিছু উপসর্গ দেখা দেয়। যেমন-

সারাক্ষণ ক্ষুধা লাগা : প্রোটিন জাতীয় খাবার অনেকক্ষণ পর্যন্ত পেট ভর্তি রাখে। কিন্তু পর্যাপ্ত প্রোটিন শরীরে না গেলে ক্ষুধা লাগাটাই স্বাভাবিক।

রক্তে শর্করার ভারসাম্যহীনতা : ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য প্রোটিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি। প্রোটিনের অভাব রক্তে শর্করার মাত্রায় স্ফীতি ঘটাতে পারে। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ডাল,মাছ, ডিম, বাদাম ইত্যাদি প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় রাখা উচিত।

চুল ঝরলে : শুধু শরীর সুস্থ রাখতেই নয়, সৌন্দর্য ধরে রাখতেও প্রোটিন প্রয়োজন। পর্যাপ্ত প্রোটিনের অভাবে ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। এমনকি চুল পড়ার সমস্যার পিছনেও থাকতে পারে পর্যাপ্ত প্রোটিনের অভাব।

ক্ষত শুকাতে দেরি হলে : প্রোটিন ত্বকের যেকোনও ক্ষতস্থান দ্রুত সারাতে সাহায্য করে। তবে অনেকদিন ধরে কোনও ক্ষত যদি না শুকায় সেক্ষেত্রে ধরে নেওয়া যেতে পারে যে শরীরে প্রয়োজনীয় পুষ্টির অভাব রয়েছে।

ক্লান্তি ভাব : প্রোটিন শরীর ফুরফুরে রাখতে সাহায্য করে। প্রোটিনের ঘাটতি শরীরে একটা ক্লান্তি ভাব এনে দেয়।