অনেকেই মাড়ির নানা সমস্যা ভোগেন। মাড়ির বিভিন্ন ধরনের সমস্যার মধ্যে একটি হল রক্ত পড়া। একমাত্র ভুক্তভোগীরাই জানেন এই সমস্যা কতটা কষ্টদায়ক। তবে অনেকের আবার এমনিতেই মাড়ি থেকে রক্ত পড়তে পারে। তাই এ ব্যাপারে সতর্ক হওয়া জরুরি।

বিশেষজ্ঞদের কথায়, সবাই মুখের বাইরের যত্ন নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহী। কিন্তু মুখের ভিতরের যত্ন নিয়ে সকলে এতটা ভাবেন না। এই অবহেলার কারণেই মুখের গহ্বরে সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে। দাঁতেরও সমস্যা দেখা দেয় । এমনকী সেই তালিকা থেকে বাদ যায় না মাড়িও।

মাড়ি থেকে রক্ত পড়ার ঘটনা প্রায়ই দেখা যায়। সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার পাশাপাশি ঘরোয়া কিছু পদ্ধতিও অনুসরণ করতে পারেন। যেমন-

​লবঙ্গ তেল
: বাড়িতে এই সমস্যা মোকাবিলায় প্রথম পছন্দ হতে পারে লবঙ্গ তেল। এই তেল মুখের ভেতরে মাড়ির প্রদাহ কমাতে পারে। এটি ব্যবহারে রক্ত কম বের হয়। এক্ষেত্রে লবঙ্গ তেল সরাসরি নিয়ে মাড়িতে দিতে পারেন। আবার চাইলে সরাসরি মুখে চিবিয়ে নিতে পারেন লবঙ্গ।  প্রাথমিকভাবে এতে মুখ সামান্য জ্বলবে। তারপর সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

​অ্যালোভেরা
: অ্যালোভেরা কেবল মুখের বাইরের সমস্যা নয়, মুখের ভেতরের সমস্যাতেও দারুণ কাজ করে। অ্যালোভেরার মধ্যে এমন কিছু উপকারী উপাদান রয়েছে যা মাড়ির বিভিন্ন সমস্যা কমাতে পারে। এক্ষেত্রে সামান্য পরিমাণে অ্যালোভেরা নিয়ে মাড়ির ওই অংশে মাখুন। এতে সমস্যা অনেকটা কমে যাবে।

​নিয়মিত ব্রাশ করুন
: মাড়ির সমস্যা দূরে রাখতে চাইলে নিয়মিত ব্রাশ করতে হবে। এক্ষেত্রে দিনে দুবার ব্রাশ করা যেতে পারে। কারণ ব্রাশ করলে মুখের প্রদাহ কমে। এমনকী মুখের সমস্যা হওয়ার আশঙ্কাও কমে বহুগুণ। তাই একবার সকালে এবং একবার খাওয়ার পর রাতে ব্রাশ করুন।

​গরম পানি দিয়ে কুলিকুচি
: গরম পানি মুখের ভেতরের যে কোনও সমস্যায় কার্যকরী। মাড়ির সমস্যা কমাতেও পারে এই পানি। এক্ষেত্রে পানি ফুটিয়ে নিয়ে তা কিছুক্ষণ রেখে দিন। তারপর মোটামুটি সহনযোগ্য হলে তারমধ্যে সামান্য লবণ মিশিয়ে দিন এবং কুচিকুচি করুন।

​ভালো খাবার : মৌসুমি ফল, শাক, সবজি খান। এই খাবারগুলিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট দাঁতের যে কোনও সমস্যা দূর করতে পারে। এছাড়াও এই খাবারগুলিতে ভালো পরিমাণে ভিটামিন ও খনিজ রয়েছে। পাশাপাশি শরীরে ক্যালশিয়ামের জোগান ঠিক রাখতে দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার বেশি করে খান।

ধূমপান ত্যাগ : সিগারেট পান বা অন্যান্য তামাক খেলে মুখের ভিতরে নানা সমস্যা হতে পারে। মুখ থেকে রক্ত বের হওয়ার পিছনে থাকতে পারে এই বদভ্যাস। তাই  সিগারেট ছাড়তে হবে। পাশাপাশি পানমশলা চিবানোর অভ্যাসও খুবই খারাপ। এই ধরনের অভ্যাস মুখের নানা রোগ তৈরি করে।

​চিকিৎসকের পরামর্শ নিন
: এসব ঘরোয়া পদ্ধতিতে সমস্যা না কমলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।