ডায়াবেটিস রোগীদের সাধারণত মিষ্টি ফল থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।  এই সমস্যার সমাধান হতে পারে স্ট্রবেরি। সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে, স্ট্রবেরি এমন একটি সুপারফুড, যা রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি মিষ্টি খাওয়ার চাহিদা মেটাতেও সহায়তা করতে পারে।

সম্প্রতি গবেষকরা রক্তে গ্লুকোজের মাত্রার সঙ্গে স্ট্রবেরি গ্রহণের প্রভাব নিয়ে একটি গবেষণা চালিয়েছেন। ‘ফুড অ্যান্ড ফাংশন’নামক একটি বিজ্ঞান পত্রিকায় প্রকাশিত এই গবেষণায়, গবেষকরা ১৪ জন অংশগ্রহণকারীদের তিনটি পৃথক বিরতিতে একটি স্ট্রবেরির তৈরি পানীয় পান করতে বলেছিলেন।

এতে দেখা গেছে, যারা তাদের খাবারের পাশাপাশি স্ট্রবেরির পানীয় পান করেছেন, তাদের তুলনায় যারা খাবারের দু’ঘণ্টা আগে স্ট্রবেরির পানীয় গ্রহণ করেন তাদের রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা প্রায় দশ ঘণ্টা ধরে উল্লেখযোগ্য ভাবে কম ছিল । গবেষকদের ধারণা, স্ট্রবেরি ইনসুলিন সঙ্কেতকে উন্নত করে। তা রক্ত প্রবাহ থেকে শর্করাকে বার করে এবং কোষ পাঠিয়ে দেয়। সেখানে এটি শক্তিতে রূপান্তরিত হয়।

এছাড়া ‘উইমেনস হেলথ স্টাডি’-তে প্রকাশিত একটি গবেষণায় দেখা গেছে, যে সব নারী প্রতি সপ্তাহে দু’বারের বেশি স্ট্রবেরি খান, তাদের তুলনায় স্ট্রবেরি না খাওয়া নারীদের ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি প্রায় ১০ শতাংশ কম। বিশেষজ্ঞদের মতে, স্ট্রবেরিতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট ও পলিফেনল ডায়াবেটিস রোগের সঙ্গে লড়াই করতে এবং প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। বেশি অ্যান্থোসায়ানিন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া ডায়াবিটিসের ঝুঁকি কমাতে পারে।

স্ট্রবেরিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন সি এবং ম্যাগনেশিয়াম থাকে।  ভিটামিন সি ও অ্যান্টি-অক্সিড্যান্টে সমৃদ্ধ খাবার ডায়াবেটিস সংক্রান্ত জটিলতা কমাতে সাহায্য করে। ম্যাগনেশিয়াম ইনসুলিনের সমস্যা কমায়, যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

স্ট্রবেরি ফাইবারের ভাল উৎস হওয়ায় রক্তে শর্করার মাত্রার ভারসাম্য বজায় থাকে। স্ট্রবেরি কম গ্লাইসেমিক মান যুক্ত ফল হিসাবে পরিচিত। এ কারণে ডায়াবেটিস রোগীদের এই ফল খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

তবে কোনও খাবারই অতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়া উচিত নয়। রক্তে শর্করার মাত্রা একেবারে কমিয়ে দেবে এমন কোনও নির্দিষ্ট খাবার নেই। বিশেষ খাবারে উপস্থিত সার্বিক কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। স্ট্রবেরির ‘গ্লাইসেমিক ইনডেক্স’ কম।  কিন্তু তাই বলে এটি রেবশি পরিমাণে খাওয়া ঠিক নয়। পুষ্টিবিদদের মতে, সকাল বা সন্ধ্যায় হালকা খাবার হিসাবে  ৪ থেকে ৫টি স্ট্রবেরি খাওয়াই ভাল।