অনেকেরই কোলেস্টেরলের সমস্যা আছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাত্রার কারণেই এই সমস্যা হয়।  শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে গেলে স্ট্রোক, হৃদরোগের মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই প্রতিটি মানুষকে অবশ্যই এই বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

শরীরে কোলেস্টেরল বাড়ার পেছনে অনেক কারণ থাকতে পারে। এক্ষেত্রে মূল কারণ অবশ্যই খাদ্যাভ্যাস। ভুলভাল খাবার খেলে শরীরে সমস্যা দেখা দেওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই বাড়ে। তাই প্রতিটি মানুষকে অবশ্যই এ ব্যাপারে হতে হবে সাবধান।

রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেশি থাকলে যেসব খাদ্য এড়ানো প্রয়োজন-

রেড মিট : রেড মিট হল খুবই সমস্যা সৃষ্টিকারী একটি খাবার। এই খাবারে ভালো পরিমাণ প্রোটিন রয়েছে ঠিকই, তবে এর পাশাপাশি রয়েছে অনেকটা ফ্যাটও। এই ফ্যাট শরীর খারাপ করে দিতে পারে। এক্ষেত্রে এই খাবারে ফ্যাটের পরিমাণ এতটাই বেশি থাকে যে কোলেস্টেরল দ্রুত বেড়ে যায়। তাই কোলেস্টেরলের সমস্যায় ভোগা প্রতিটি মানুষকে অবশ্যই রেড মিট খাওয়া থেকে দূরে থাকতে হবে। বরং অন্য ধরনের মাংস খেতে পারেন ।

প্রক্রিয়াজাত মাংস : প্রত্রিয়াজাত মাংস খাওয়া এড়িয়ে চলুন। কারণ এই খাবারে থাকে খারাপ ফ্যাট। এই ফ্যাট বাড়াতে পারে কোলেস্টেরল। এমনকী এই খাবারে থাকা অনেক পদার্থ মানুষকে বড়সড় সমস্যায় ফেলতে পারে। বাড়ে ক্যানসারের ঝুঁকিও। তাই এই খাবার থেকে দূরে থাকতে হবে।

বেকড ফুড : অনেকেই পিৎজা জাতীয় খাবার খান। বেশি মুখোরোচক এই খাবারে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট থাকে। পাশাপাশি এমন কিছু মসলা এই খাবারে থাকে যা নিয়মিত খেলে শরীর খারাপ করতে পারে।

ভাজা খাবার : অনেকেরই রাস্তাঘাটে ভাজা খাবার খাওয়ার অভ্যাস আছে। ফ্রেঞ্চফ্রাই থেকে শুরু করে চিকেন রোস্ট সহ নানা ধরনের খাবার এই খাদ্যতালিকায় পড়ে। এই ধরনের খাবার বাড়িয়ে দেয় কোলেস্টেরল।