আধুনিক জীবনযাত্রা, খাদ্যাভ্যাসে অনিয়মের কারণে  শরীরে নানা ধরনের রোগ বাসা বাধে। এর মধ্যে অন্যতম ফ্যাটি লিভার। যে কোনও বয়সীদের এই রোগ হতে পারে। লিভারে মাত্রাতিরিক্ত চর্বি জমে গেলে তা সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। ফ্যাটি লিভার দুই ধরনের হয়। অ্যালকোহলিক ও নন-অ্যালকোহলিক। মাত্রাতিরিক্ত অ্রালকোহল থেকে লিভারে চর্বি জমলে তা অ্যালকোহলিক ফ্যাট। কিন্তু দ্বিতীয় ক্ষেত্রটি মূলত খাদ্যতালিকায় অতিরিক্ত তেল, ফ্যাট জাতীয় উপাদান বেড়ে গেলে হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, খাদ্যাভাসে কিছু পরিবর্তন আনলেই লিভারের অসুখের ঝুঁকি কমতে পারে। গরমের দিনে খাদ্যতালিকায় এমন কিছু খাবার রাখতে পারেন যা লিভারের স্বাস্থ্য ভাল রাখার জন্য বেশ উপকারী। যেমন-

আঙুর: আঙুরে প্রচুর মাত্রায় ভিটামিন সি ও অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে। এই উপাদানগুলি লিভার থেকে টক্সিন পদার্থগুলি বার করে দিতে বেশ উপকারী। লিভারে সংক্রমণের ঝুঁকিও কমায়।

লেবু: ভিটামিন সি-তে ভরপুর লেবু শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। শরীরের বর্জ্যপদার্থগুলি বের করে দিতে এটি দারুণ উপকারী। গরমের দিনে শরীরে আর্দ্রতা ধরে রাখতে লেবু খাওয়া যেতে পারে। লিভার সুস্থ রাখতে নিয়মিত খাদ্যতালিকায় লেবু রাখুন।

সজনে ডাটা: রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সজনে ডাটার ঝুড়ি মেলা ভার। সজনে ডাটা হজমশক্তি বাড়ায়, রক্ত শুদ্ধে করে। বিভিন্ন গবেযণায় দেখা গেছে, সজনে ডাটা লিভার ফাইব্রোসিস রোগের ঝুঁকি কমায়।

দই: দই প্রোবায়োটিকের দারুণ উৎস। বিভিন্ন গবেষণা বলছে, লিভারে জমে থাকা ফ্যাট ঝরাতে দই সাহায্য করে। গরমের দিনে খাদ্যতালিকায় দই রাখলে হজম ক্ষমতা বাড়ে। এই খাবারটি পেটও পরিষ্কার রাখে।

গ্রিন টি: মেদ ঝরাতে গ্রিট টি-র তুলনা নেই। অ্যান্টি-অক্সিড্যান্টে ভরপুর গ্রিন টি লিভারের চারপাশে মেদ জমতে দেয় না। লিভার সুস্থ রাখতে প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় গ্রিন টি রাখতে পারেন।